avertisements
Text

মোঃ শফিকুল আলম

কিডনির ল্যাপারোজকপিক এন্ড রোবোটিক পার্শিয়াল নেফেক্টোমি

প্রকাশ: ০৯:২২ পিএম, ৫ সেপ্টেম্বর,শনিবার,২০২০ | আপডেট: ০৪:২৭ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর, বুধবার,২০২০

Text

৩১ আগস্ট সোমবার ২০২০ সিডনির কেন্দ্রস্থল ক্যাম্পারডাউন এর মিসেনডেন রোডে অবস্থিত একটি অত্যাধুনিক বিশেষায়িত প্রাইভেট হাসপাতালে (ক্রীস ও’ব্রায়ান লাইফ হাউজ) আমার বাম কিডনিতে ল্যাপারোজকপিক এন্ড রোবোটিক পার্শিয়াল নেফেক্টোমি অনুষ্ঠিত হয়। সর্বশেষ আহোরিত অভিজ্ঞতা বন্ধুদের জন্য শেয়ার করছি।


২০১৮ তে এ্যাবডোমেন পেইন হওয়ায় জিপি (জেনারেল প্রাকটিশিয়ান বা ফেমিলি ডক্টর) এ্যাবডোমেনের আলট্রাসাউন্ড করালেন। রাইট কিডনিতে কিছু বিনাইন (ক্ষতিকর নয়) সিস্ট পাওয়া গেলো। তারপরও জিপি আমাকে একজন ইউরোলোজিস্ট দেখার জন্য রেফার করলেন। আমি ভাবলাম সিস্ট যদি বিনাইন হয়ে থাকে তবে ৩৫০ ডলার খরচ করে শুধু শুধু বিশেষজ্ঞ দেখে লাভ কি? আমার আর বিশেষজ্ঞ দেখা হয়নি। ২০২০ এ এসে আমার নতুন জিপি ক্যাথেরিনকে বল্লাম আমার এ্যাবডোমেনের আরেকটা আলট্রাসাউন্ড হওয়া প্রয়োজন। কারন, রাইট কিডনির সিস্টগুলোর কোনো পরিবর্তন ঘটেছে কিনা। তাই করা হলো। রাইট কিডনির সিস্টগুলো যেমন ছিলো তেমনই রয়েছে। কিন্তু লেফ্ট কিডনিতে দু’টি সলিড লেসিয়ন (১.৬সেমি) দেখা গেছে। দ্রুত এমআরই করাতে হবে। কিন্তু এমআরই করানোর অর্ডার ইউরোলোজিস্ট দিবেন। জিপির এখতিয়ারে নেই। প্যানডেমিকের মধ্যে একবার বিশেষজ্ঞ দেখবো, তারপর তিনি এমআরই করার অর্ডার দিবেন ইত্যাদি বলাতে জিপি ফোনে ইউরোলোজিস্ট থেকে পারমিশন নিয়ে নিলেন এবং আমার জন্য দ্রুত সময়ে একটা এ্যাপয়েনমেন্ট করে দিলেন।


এমআরই এবং আলট্রাসাউন্ড নিয়ে যথারীতি লিভারপুল হসপিটালের ইউরোলোজি ডিপার্টমেন্টের প্রধান ড: প্যাসকেল মানকুসোকে দেখলাম। বায়োপসির জন্য গত জুলাই ২০২০ লিভারপুল হাসপাতালে পাঠালেন। যেকোনো রিপোর্ট রেফারিং ডক্টরের কাছে চলে যায় এবং রেসপেক্টিভ পেসেন্টকেও বাসায় মেইল করা হয়। রিপোর্ট পেয়ে ডাক্তারের ক্লিনিক থেকে আমাকে ফোন করে এ্যাপয়েনমেন্ট দেয়া হলো। ক্লিয়ারলি ক্যানসার সেল রয়েছে এবং গ্রেড-২ এ রয়েছে। ড: ম্যানকুসো বললেন সার্জারী আবশ্যক। যেহেতু লেসিয়ন আঁকারে ছোটো সেহেতু পার্শিয়াল নেফেক্টোমি করবেন। তিনি একজন অভিজ্ঞ রোবোটিক সার্জন। এযাবৎ পাঁচ শতাধিক ল্যাপারোজকপিক রোবোটিক সার্জারী করেছেন। তবে পাবলিক হাসপাতালে আমার জন্য ৪-৫ মাসের ওয়েটিং টাইম থাকবে। কারন আমার থেকে আরও ওয়ার্স পেসেন্ট সার্জারীর অপেক্ষায় রয়েছে। অপেক্ষমান তালিকার বাইরে গিয়ে এখানে আগপাছ করার কোনো সুযোগ নেই। সে মন্ত্রী হোন অথবা আমার মতো সাধারন নাগরিক হোন।


ক্যানসার কথাটি শোনার পর আমি অপেক্ষা করতে চাইনি। আবার প্রাইভেট ইনসিউরেন্স নেই। প্রাইভেট সার্জারী অত্যন্ত ব্যয়বহুল। তারপরও ডাক্তারকে স্ট্রেইটওয়ে সার্জারী করার জন্য অনুরোধ করলাম। সবচেয়ে কম সময়ের মধ্যে ক্রীস ও’ব্রায়েন লাইফ হাউজে বুকিং পাওয়া গেলো ২৯ আগস্ট শনিবার ২০২০। আমি সম্মতি প্রকাশ করলাম।


যেহেতু সার্জারী হবে সেহেতু একজন পেশেন্টকে সংশ্লিষ্ট সার্জনের আইনি দায়িত্ব হচ্ছে কিভাবে পুরো প্রসিজার তিনি করবেন তার সামগ্রিক ধারনা দেয়া। সেক্ষেত্রে তিনি পেশেন্টকে মুখে এক্সপ্লেইন করবেন, চিত্র এঁকে দেখাবেন, ভিডিও প্রদর্শন করবেন। তবে সব ক্ষেত্রেই পেশেন্টের অনুমতি লাগবে।


প্রথমে ডাক্তার আমাকে টোটাল প্রসিজারে কতো ব্যয় হবে তার একটি বিস্তারিত ব্রেকআপ দেখালেন। তারপর তাঁর সহযোগী ডাক্তার জর্জ সম্পর্কে বর্ননা দিলেন, নার্সদের সম্পর্কে বললেন। এ্যানেসথেটিস্ট ড: ল্যাম সম্পর্কে বললেন। হাসপাতালটি সম্পর্কে বললেন। ক্রীস ও’ব্রায়ান লাইফ হাউজ একটি নট ফর প্রোফিট অর্গানাইজেশন। এটি একটি কম্প্রেহেনসিভ ক্যানসার হসপিটাল। এখানে যেমন ক্যানসার প্রিভেনশন করার জন্য স্ক্রীনিং করা হয়; তেমন ক্যানসারের চিকিৎসা নিশ্চিত করে মানুষের ওয়েলবিইং সংহত করা হয়। ক্যানসার গবেষনায়ও প্রতিষ্ঠানটি অগ্রনি ভূমিকা পালন করছে। প্রায় সব ধরনের জটিল ক্যানসার যেমন- বাওয়েল, কোলোরেকটাল, ব্রেস্ট, গ্যাস্ট্রোয়েনটেরোলোজিকাল, লিউকেমিয়া, লাং, মিজোথেলিউমা, লিম্ফোমা, মেলানোমা, স্কীন, মাইলোমা, নিউরোলোজিকাল, প্যানক্রিয়েটিক, ইউরোলোজিকাল, ব্লাডার, প্রোস্টেড, টেস্টিকুলার ইত্যাদির চিকিৎসা দেয়া হয়।


এবারে আমি ডাক্তারকে তাঁর ল্যাপারোজকোপিক এন্ড রোবোটিক পার্শিয়াল নেফেক্টোমির বিস্তারিত বলার পূর্বে আমার কিডনিতে ক্যানসার গ্রো করার বিষয়ে কেনো কোনো সিম্পটম আগে জানা গেলোনা সে সম্পর্কে জানতে চাইলাম। ৯৯% ক্ষেত্রে কোনো সিম্পটমের ভিত্তিতে পরীক্ষা নীরিক্ষা করে কিডনি ক্যানসার ডায়াগনসিস হয়না। নিয়মিত ব্লাড পরীক্ষায়ও আবিষ্কৃত না-ও হতে পারে। বিগত ৩/৪ মাস আমার লোয়ার ব্যাকপেইন ছিলো। এটি একটি সিম্পটম। কিন্তু যেহেতু অধিকাংশ সময়ে অন্য কারনেই লোয়ার ব্যাকপেইন হয়ে থাকে সেহেতু জিপিরা এটাকে চট করে কিডনি ক্যানসারের সিম্পটম মনে করে পরীক্ষা করতে পাঠাননা। সুতরাং অন্য একটির পরীক্ষা করতে গিয়ে অপ্রত্যাশিতভাবেই এই ধরনের একটি ক্যানসার আবিষ্কৃত হয়ে থাকে। আমার সকল ব্লাড টেস্টের রেজাল্ট বলেছে কিডনিস ফাংশনিং ফ্যানটাস্টিকাললি ওয়েল।


এবারে ডাক্তার তাঁর ল্যাপারোজকপিক এন্ড রোবোটিক পার্শিয়াল নেফেক্টোমি সম্পর্কে বর্ননা করলেন। For patients diagnosed with a small (i.e., < 4 cm and mine were 1.6 cm) kidney tumor, laparoscopic and robotic partial nephrectomy provides patients with a safe and minimally invasive technique for removal of the tumor, while preserving the remainder of the healthy kidney. অর্থাৎ, পুরো কিডনিকে অক্ষত রেখে শুধুমাত্র লেসিয়ন দু’টোকে তুলে আনা হবে। এতে করে ভবিষ্যতে আমার সংশ্লিষ্ট কিডনি ফেইলিউরের কোনো রকম সম্ভাবনা থাকবেনা বা মিনিমাম রিস্ক থাকলেও থাকতে পারে। এটি মিনিমাললি ইনভেসিভ এ্যাপ্রোচ। সার্জিকাল ছিদ্রগুলো দ্রুত শরীরে মিলিয়ে যায়, প্রায় নো ব্লাড লস (সর্বোচ্চ ১০০ সিসি), ২/৩ দিনের বেশী হাসপাতালে থাকতে হয়না।


এবারে ডাক্তার ঠিক যেভাবে সার্জারী করবেন তার সচিত্র বর্ননা দিলেন। আমাকে জেনারেল এ্যানেস্থিয়া দেয়া হবে। অপারেশনে ৩-৪ বা ৪-৫ ঘন্টা লাগতে পারে। আমার পেটে ৩-৫ টি ছিদ্র করা হতে পারে (৫ টি করেছিলো)। এই ছিদ্র দিয়ে সার্জন টেলিসকোপ (called laparoscope) এবং সার্জিকাল ইনস্ট্রুমেন্ট প্রবেশ করাবেন পোর্টালের মধ্য দিয়ে যাকে ট্রকারস বলা হয়। ল্যাপারোজকোপ সার্জনকে অপারেটিভ ফিল্ডের ১০X ম্যাগনিফিকেশনে ইমপ্রুভড ভিউ পেতে সহায়তা করে এবং সার্জনকে এ্যাবডোমেন ক্যাভিটিতে হাত দিয়ে স্পর্শ করতে হয়না। এ্যবডোমেনকে কার্বনডাই অক্সাইড গ্যাস প্রবেশ করিয়ে লার্জার ওয়ার্কিং স্পেস তৈরী করা হয়। অপারেশন শেষে পায়ুপথ দিয়ে গ্যাস বের করে দেয়া হয়।
The robot assembles to the operating trocars
With the operating surgeon seated a few feet away at the surgeon operating console, the robotic instrumentation is controlled by the surgeon in real time with highly precise motion scaling.
The surgeon controls 2-3 multi-jointed robotic instruments to accomplish the tasks of dissection, cauterization, cutting and suturing 
মাল্টিজয়েন্টেড রোবোটিক ইনস্ট্রুমেন্টস সার্জনকে বডির ভেতরে ঠিক মানুষের ক্ষুদ্র হাত সন্চালনের ন্যায় অপারেশন করতে সহায়তা করে। সার্জন একটি 3D স্টেরিয়োস্কোপ নিয়ন্ত্রন করে কিডনির ভেতরের হাই ডেফিনিশন ইমেইজ দেখতে পারেন এবং লেসিয়নের বর্ডার চিত্রন করতে পারেন এবং প্রেসাইসলি শুধু tumour তুলে নিতে পারেন। কিডনিতে সাময়িকভাবে রক্ত সন্চালন বন্ধ রাখা হয় রোবোটিক ক্লাম্প দিয়ে। সেজন্য ব্লাড লস মিনিমাম। রোগীকে ব্লাড দিতে হয়না। tumour রিমুভ করে সার্জিকাল গ্লু দিয়ে ক্ষতস্থান সীল করা হয় এবং দ্রুত কিডনিতে ব্লাড রিস্টোর করা হয়।


সবকিছুই বুঝলাম। কিন্তু ২৮ আগস্ট ড: মানকুসো ফোন করে বললেন ২৯ আগস্ট অপারেশনটা হচ্ছেনা। এ্যানেসথেটিস্ট ড: ল্যাম বাঁধ সেধেছেন। আমি ডায়াবেটিসের জন্য জারডিয়ান্স এবং হার্টের জন্য এ্যাপিরিন গ্রহন করে থাকি যা’ অপারেশনের অন্তত তিন দিন আগে থেকে গ্রহন বন্ধ করতে হবে। অন্যথায় এ্যানেস্থেসিয়ায় ঝুঁকি রয়েছে। অবশেষে ৩১ আগস্ট সোমবার ২০২০ সফলভাবে অপারেশন শেষ হলো। ডাক্তার যেমনটা বলেছিলেন আমি পরের দিন হাটতে পারবো এবং পরের দিন দ্রুত হাটতে পারবো তার কোনো ব্যত্যয় ঘটেনি। ৩ সেপ্টেম্বর বাসায় ফিরলাম। ৪ সেপ্টেম্বর স্বাভাবিকভাবে জামায়াতে জুম্মার নামাজ আদায় করলাম। সংগত কারনে আরও কিছুদিন রেস্ট নিতে হবে। আমার সকল শুভানুধায়ীগনকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণে রাখবো। আপনারা অনেকেই আমার জন্য প্রান খুলে দোয়া করেছেন। আমার অপারেশনের ফিরিস্তি দেয়ার জন্য আজকের লেখা নয়। ইনফরমেশন আমার বন্ধুদের জন্য প্রয়োজনীয় হতে পারে সেই ভাবনা থেকেই লিখলাম।

বিষয়:

লেখকের আরও লেখা

avertisements
গণফোরামে আবারও উত্তেজনা
গণফোরামে আবারও উত্তেজনা
চলুন সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে ভারতের বি’রুদ্ধে আরেকটি যু’দ্ধ ঘোষণা করি
চলুন সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে ভারতের বি’রুদ্ধে আরেকটি যু’দ্ধ ঘোষণা করি
বাবা হচ্ছেন মিরাজ
বাবা হচ্ছেন মিরাজ
বাংলাদেশের মন্দ ঋণ: 'শীর্ষ ১০ গ্রহীতা ঋণ খেলাপী হলেই ৩৭টি ব্যাংক মূলধন সংকটে পড়বে'
বাংলাদেশের মন্দ ঋণ: 'শীর্ষ ১০ গ্রহীতা ঋণ খেলাপী হলেই ৩৭টি ব্যাংক মূলধন সংকটে পড়বে'
ঝুঁকি নিয়ে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
ঝুঁকি নিয়ে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
মর্গে পড়ে আছে অভিনেত্রী মিনুর লাশ, আসছেন না সন্তানরাও
মর্গে পড়ে আছে অভিনেত্রী মিনুর লাশ, আসছেন না সন্তানরাও
হুয়াওয়ে আরও বেশী কর্মী ছাঁটাই ও বিনিয়োগ কমাবে অস্ট্রেলিয়াতে
হুয়াওয়ে আরও বেশী কর্মী ছাঁটাই ও বিনিয়োগ কমাবে অস্ট্রেলিয়াতে
ভারত থেকে আসা পচা পেঁয়াজে ব্যবসায়ীদের ১০ কোটি টাকা ক্ষতি
ভারত থেকে আসা পচা পেঁয়াজে ব্যবসায়ীদের ১০ কোটি টাকা ক্ষতি
বানের পানির মতো আসছে রেমিট্যান্স, রিজার্ভেও রেকর্ড
বানের পানির মতো আসছে রেমিট্যান্স, রিজার্ভেও রেকর্ড
ব্রিটিশ নাগরিকদের বাড়ি থেকে কাজ করার আহ্বান বরিস জনসনের
ব্রিটিশ নাগরিকদের বাড়ি থেকে কাজ করার আহ্বান বরিস জনসনের
একফোটা দুধ পেতে মৃত মায়ের পাশে অবুঝ শিশুর বুকফাটানো আর্তনাদ ও চিৎকার
একফোটা দুধ পেতে মৃত মায়ের পাশে অবুঝ শিশুর বুকফাটানো আর্তনাদ ও চিৎকার
মিথ্যা মামলা আইনগত নয়, রাজপথেই মোকাবিলা করব: ভিপি নুর
মিথ্যা মামলা আইনগত নয়, রাজপথেই মোকাবিলা করব: ভিপি নুর
আর লকডাউনের কথা ভাবছে না সরকার
আর লকডাউনের কথা ভাবছে না সরকার
প্রশংসায় ভাসছেন প্রাথমিকের এক সহকারি শিক্ষক
প্রশংসায় ভাসছেন প্রাথমিকের এক সহকারি শিক্ষক
১৯ কোটি টাকার রাস্তা নষ্ট হলো ৭ দিনেই
১৯ কোটি টাকার রাস্তা নষ্ট হলো ৭ দিনেই
সিডনির মিউচুয়াল প্রপার্টি গ্রুপের ৪৯% শেয়ার কিনেছেন চাইনিজ কনস্ট্রাকশন গ্রুপ রিশল্যান্ড প্রজেক্ট কোং
সিডনির মিউচুয়াল প্রপার্টি গ্রুপের ৪৯% শেয়ার কিনেছেন চাইনিজ কনস্ট্রাকশন গ্রুপ রিশল্যান্ড প্রজেক্ট কোং
একজন মানুষের কত জমি দরকার ?
একজন মানুষের কত জমি দরকার ?
ইউএনওর বাসভবনের সিসি ক্যামেরার ফুটেজে যা পাওয়া গেছে
ইউএনওর বাসভবনের সিসি ক্যামেরার ফুটেজে যা পাওয়া গেছে
অক্সফোর্ডের করোনার ভ্যাকসিন বিরোধীতায় অস্ট্রেলিয়ার ইমাম ও আর্চবিশপ
অক্সফোর্ডের করোনার ভ্যাকসিন বিরোধীতায় অস্ট্রেলিয়ার ইমাম ও আর্চবিশপ
অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী হচ্ছেন ফারিয়া
অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী হচ্ছেন ফারিয়া
৩০ বছরের পর অর্থনৈতিক মন্দায়  অস্ট্রেলিয়া
৩০ বছরের পর অর্থনৈতিক মন্দায় অস্ট্রেলিয়া
বাংলাদেশের মোয়াজ্জেম হলেন  অস্ট্রেলিয়ায় সেরা শিক্ষক
বাংলাদেশের মোয়াজ্জেম হলেন অস্ট্রেলিয়ায় সেরা শিক্ষক
বাসায় থাকা ৪০ লাখ টাকা নিয়ে এবার প্রশ্ন
বাসায় থাকা ৪০ লাখ টাকা নিয়ে এবার প্রশ্ন
শাহজালাল বিমানবন্দরে আটক ২৪ কোটি টাকার ইয়াবার কাঁচামালের গন্তব্য ছিল অস্ট্রেলিয়া
শাহজালাল বিমানবন্দরে আটক ২৪ কোটি টাকার ইয়াবার কাঁচামালের গন্তব্য ছিল অস্ট্রেলিয়া
বাংলাদেশে ব্যবসায় অংশীদারিত্বের সুযোগ দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া
বাংলাদেশে ব্যবসায় অংশীদারিত্বের সুযোগ দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া
নাচের আড়ালে যত জঘন্য কাজ হয় জানালেন জনপ্রিয় নৃত্যশিল্পী ওয়ার্দা রিহাব
নাচের আড়ালে যত জঘন্য কাজ হয় জানালেন জনপ্রিয় নৃত্যশিল্পী ওয়ার্দা রিহাব
খারাপ উদ্দেশ্যে জিনিয়াকে নিয়ে যায় লোপা: ডিবি
খারাপ উদ্দেশ্যে জিনিয়াকে নিয়ে যায় লোপা: ডিবি
চার মাসের ব্যবধানে দুই ছেলে হারালেন সাবেক এমপি শহীদুল
চার মাসের ব্যবধানে দুই ছেলে হারালেন সাবেক এমপি শহীদুল
সঞ্চয়পত্র পাঁচ লাখ টাকা অতিক্রম করলেই ১০% কর
সঞ্চয়পত্র পাঁচ লাখ টাকা অতিক্রম করলেই ১০% কর
আইএস নেতার সঙ্গে আমার বিয়ে হয়েছিল' বললেন বাংলাদেশি তানিয়া
আইএস নেতার সঙ্গে আমার বিয়ে হয়েছিল' বললেন বাংলাদেশি তানিয়া
avertisements
avertisements