avertisements

কোভিডে শিশুদের নতুন রোগের উপসর্গ

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশ: ০৪:৫৩ পিএম, ৯ সেপ্টেম্বর, বুধবার,২০২০ | আপডেট: ০২:১৭ এএম, ২৯ সেপ্টেম্বর,মঙ্গলবার,২০২০

Text

মাল্টিসিসটেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোম ইন চিলড্রেন এমআইএসসি নামক এই রোগে আক্রান্ত শিশু প্রথম ধরা পরে মে মাসের ১৫ তারিখ এভার কেয়ার হাসপাতালে। প্রথম রোগীর বয়স সাড়ে তিন মাস। তাকে ভর্তী করা হয়। এভারকেয়ার হাসপাতালে প্রথম দিকে এই রোগ নিয়ে ভর্তী হয় ১০ শিশু। যাদের সবাই সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এখন আরো ১০ শিশু ভর্তী আছে।

বিভিন্ন হাসপাতালে এপর্যন্ত এই রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রায় অর্ধশতাধীক শিশু চিকিৎসা নিয়েছে। যাদের অনেকেই সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। রোগটি নিয়ে হেলা না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিলে শিশুদের সুস্থ্য হওয়ার সুযোগ বেশি।

এই রোগের উপসর্গ উচ্চ তাপমাত্রার জর, শরীরে লাল র‌্যাশ, বমি-ডায়রিয়া, পেট ও বুক ব্যাথা, খাবারে অনীহা। এখন পর্যন্ত ঢাকা মেডিকেলে ২০ শিশু। যাদের ছয়জন এখনো ভর্তী আছে। ঢাকা শিশু হাসপাতালে ভর্তী হয়েছেন ৮ জন। এদের ৬ জন সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

করেননি, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে আইনসম্মত বিচার হোক, অভিযোগের প্রেক্ষিতে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠানো কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়

[৫] শিশুদের হার্ট এট্যাক, নিউমোনিয়া, নিম্ন রক্তচাপসহ জোটিল রোগ সৃষ্টিকারি এসব উপসর্গ দেখা দিলেই হাসপাতালে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে বলছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগের প্রধান অধ্যাপক সাঈদা আনোয়ার বলেন, পা ফুলে যায়, হাত ফুলে যায়, ভীষন পেট ব্যথা হয়। সংক্রমনের প্রথম ১০ দিনেই যদি বাবা মায়েরা শিশুকে হাসপাতালে নিয়ে আসে তাহেল চিকিৎসা দিতে সুবিধা হয়।

এভায়ার কেয়ার হাসপাতালের ডা. তাহেরা নাজরিন বলেন, এই রোগটি কোভিডের সঙ্গে সম্পর্কিত। যেসব শিশুরা ভর্তী হয়েছিলো তাদের কেউ কেউ কোভিড আক্রান্ত ছিলো। আবার কেউ কেউ কোভিড রোগির কাছাকাছি ছিলো। এই সময়টায় শতর্ক থাকতেই হবে। বাচ্চাদের অবশ্যই কোভিড রোগীদের কাছ থেকে দুরে রাখতে হবে।

শিশু হাসপাতালের প্রধান অধ্যাপক ডা. সৈয়দ শফি আহমেদ বলেন, কোভিড আক্রান্তদের কাছাকাছি থাকা বা সুস্থ্য হয়ে ওঠা রোগীদের শরীরে এন্টিবডি তৈরি হওয়ার পর এমআইএসসি রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা। এটি একটি জোটিল ও বিরল রোগ। সময় মত চিকিৎসা দিতে পারলে রোগীর মৃত্যু শঙ্কা কেটে যাবে। এ ব্যাপারে চিকিৎসক ও অভিভাবকদের সচেতন থাকতে হবে।

গত ২৬ এপ্রিল প্রথম বারের মতো যুক্তরায্যে রোগটি ধরা পরে।

বিষয়: কোভিড

আরও পড়ুন

avertisements