avertisements

শাহজাহান ভাই

অজল জালাল
প্রকাশ: ১২:০১ এএম, ৫ অক্টোবর,সোমবার,২০২০ | আপডেট: ০১:৫৬ পিএম, ৩১ অক্টোবর,শনিবার,২০২০

Text

মোজেজাটা ভালই ছিল –

নরম্যালটা পাঁচ সিকে, স্পেশাল পাঁচ’শ

কেন এত ডিফারেন্স! চক্ষু চড়কগাছ।

সে এক বিরস কাহানী জড়ি বুটিওয়ালা

নাম শাহজাহান-ভাই বলে চিনে সবে।

ইয়া মস্ত ভুঁড়ি বয়াতির ঝাঁকড়া চুল

বুক ফাঁড়া ফতুয়া সফেদ লুঙ্গি

কাঁধে গামছা -মানিয়েছেও বেশ।

 

বিষ বেদনা বাতের ব্যাথা মেহ-প্রমেহ

ব্যর্থ পৌরুষত্ব একগাদা ফিরিস্তি

হেন রোগ নাই সমাধানহীন।

হরিতকি বহড়া গাছ গাছড়া হারবাল

মাছের কাঁটা-মুলতানি মৃত্তিকাও সামিল।

পুরিয়া তাবিজ কালো ধাগায়

বাঁধুন, কোমর কিংবা হাতে

মাত্র সাতদিন বড়জোর তিরিশ

বিফলে মুল্য ফেরত চড়া হুংকার-

শাহজাহান ভাইয়ের।

 

বিপর্যস্ত বিকারগ্রস্ত পোড় খাওয়া মানুষ

কিংবা পঞ্চাশোর্ধ – বিশ তিরিশের

খায়েশ যার মনে; হুমড়ি খেয়ে পড়ে

চালচিত্র তৃতীয় বিশ্বের এই ভূসমাজে।

একবিংশের ডিজিট্যালের ধাঁধাঁ জাগানো

ওয়েব ইমেইলের যুগে এখনও সেই

ঝাড়ফুক তাবিজের তুক্‌তাক্‌-

এই জনপদে! হা কপাল।        

 

বিষয়:

আরও পড়ুন

avertisements