avertisements 2

কথা রাখলেন ব্যারিস্টার সুমন

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশ: ১২:০০ এএম, ২০ জানুয়ারী,শনিবার,২০২৪ | আপডেট: ০২:২১ পিএম, ২৯ ফেব্রুয়ারী,বৃহস্পতিবার,২০২৪

Text

নির্বাচনের আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি অনুয়ায়ী কাজ শুরু করেছেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। হবিগঞ্জ-৪ (চুনারুঘাট-মাধবপুর) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে তিনি খোয়াই নদী পরিষ্কারে নেমেছেন। চুনারুঘাট পৌরশহরের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া নদী থেকে শুক্রবার তাঁর নেতৃত্বে কচুরিপানা ও বর্জ্য অপসারণ শুরু হয়। এতে সহায়তা করেন বিডি ক্লিন নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ৬০০ কর্মী। 

স্থানীয়রা জানান, দখল দূষণ আর কচুরিপানায় ভরপুর ছিল পুরাতন খোয়াই নদীর প্রায় দেড় কিলোমিটার অংশ। ৪০ বছর ধরে নদীটির ওপর দখল আর দূষণ চলছিল। কোনো জনপ্রতিনিধি এ নদী রক্ষায় উদ্যোগ নেয়নি। কিন্তু এমপি নির্বাচিত হওয়ার কয়েক দিনের মাথায় প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করায় ব্যারিস্টার সুমনকে ধন্যবাদ জানান এলাকাবাসী।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘আমি ইশতেহারে ঘোষণা করেছিলাম, খোয়াই নদীর কচুরিপানা ও বর্জ্য অপসারণ আমার জন্য প্রথম অন্যতম একটি কাজ। তাই আমি বিডি ক্লিনের সদস্যদের নিয়ে কাজটি করেছি। নদীটিকে আগের রূপে ফিরিয়ে দেওয়া হবে। তারপর উভয় পাশে সাধারণ মানুষের চলাচলের সুবিধার্থে ওয়াকওয়ে নির্মাণ করা হবে।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা নদীটির দেড় কিলোমিটারের অর্ধেক পরিষ্কার করেছি। বাকিটা স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকরা পরিষ্কার করবেন; আমিও উপস্থিত থাকব।’বিডি ক্লিনের সমন্বয়ক জহিরুল ইসলাম রবি বলেন, ‘সারা দেশে ৫৭টি জেলায় আমাদের সদস্য রয়েছে। আমরা এবার ব্যারিস্টার সুমনের আহ্বানে চুনারুঘাটে এসে খোয়াই নদী পরিষ্কার করেছি।’

বিষয়:

আরও পড়ুন

avertisements 2