avertisements

ভূমি কার্যালয়ে নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার আগেই ভেঙে পড়ল সরকারি অফিস!

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশ: ০২:২৫ এএম, ২০ ফেব্রুয়ারী,শনিবার,২০২১ | আপডেট: ১২:১০ এএম, ১২ এপ্রিল,সোমবার,২০২১

Text

বরগুনার বেতাগীতে ইউনিয়ন ভূমি কার্যালয়ে ভবন নির্মাণকাজ শেষ হতে না হতেই ভবনের সম্মুখভাগ ভেঙে পরেছে। সিডিউল মোতাবেক কাজ না করায় এবং নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহার করার ফলে নির্মানাধীন ভবন ভেঙে পড়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কাজিরাবাদ ইউনিয়নের চান্দখালী বাজারে ২০২০ সালের নভেম্বর মাসে এলজিইডি ১ কোটি ৬০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে একটি প্যাকেজের দরপত্র আহবান করে। খান এন্টারপ্রাইজ নামে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠিান ওই ইউনিয়ন ভূমি কার্যালয়ের ভবন নির্মান কাজ শুরু করেন। কাজ শুরু কয়েক মাসের মাথায় গতকাল বৃহাস্পতিবার (১৮ ফ্রেরুয়ারি) সকাল এগারটার দিকে ঠিকাদারের লোকজন সেন্টারিং খোলার সময় হঠাৎ ভবনের সম্মুখভাগ ভেঙে পড়ে । নাম না প্রকাশের শর্তে স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি বলেন, ভূমি কার্যালয়ের ভবন নির্মানের ইট, বালু, রড ও সিমেন্টের আনুপাতিক হারে প্রয়োগ করা হয়নি। এতে নিম্নমানের নির্মান সামগ্রী ব্যবহার করা হয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ‘খান ইন্টারপ্রাইজ’র স্বত্ত্বাধিকারী মো. খলিলুর রহমান খান বলেন.‘ ভূমি কার্যালয়ের ভবন নির্মানের কাজের দরপত্রের প্রাক্কলন অনুযায়ী কাজ করা হয়েছে।’

কাজিরাবাদ ইউনিয়নের তহশীলদার মো. মহসিন মিয়া জানান, ‘আমি নির্মানাধীণ নতুন ভবন সংলগ্ন অফিসের ভেতরে বসা ছিলাম। হঠাৎ বিকট শব্দ পেয়ে দেখি ভবনের সম্মুখভাগ ধসে পরেছে। ঠিকাদারের লোকজন সেন্টারিং খোলার কাজ করছে। তবে কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।’

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সুহৃদ সালেহীন বলেন, ’ ভবন ধসে পরার খকর শোনার পর এ বিষয় আমি সার্বিক খোজ নিয়ে জেনেছি ঠিকাদারের লোকজন দীর্ঘদিন কাজটি ফেলে রাখায় অসতর্কতার কারণে সমস্যা হয়েছে। এটি ভবনের বাহিরের অংশ। তবে এতে বড় ধরনের কোন সমস্যা হবে না। ইতোমধ্যে ঠিকাদারকে সঠিকভাবে সিডিউল মোতাবেক কাজ শুরু করার নির্দেশ দিয়েছি। তবে সিডিউল মোতাবেক কাজ না করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

বিষয়:

আরও পড়ুন

avertisements