avertisements 2

পার্থে আলোকসজ্জায় বাংলাদেশকে উপস্থাপন

মোশারফ হোসেন নির্জন
প্রকাশ: ১২:০০ এএম, ২২ ডিসেম্বর, বুধবার,২০২১ | আপডেট: ০৭:৪৪ পিএম, ২৪ জানুয়ারী,সোমবার,২০২২

Text

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে অভিনব সাজে সাজলো অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় রাজ্য ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া। বৃহস্পতিবার (১৬ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা গড়াতেই লাল-সবুজ বাতিতে আলোকিত হয়ে ওঠে অস্ট্রেলিয়ার সর্বাধুনিক স্থাপনা ‘অপটাস স্টেডিয়াম’ ও নান্দনিক ‘মেটাগেরাপ’ ব্রিজ।

অস্ট্রেলিয়া সরকারের কাছে বাংলাদেশি কমিউনিটি কতটা গুরুত্ব বহন করে এ আলোকসজ্জা যেন তারই উদাহরণ। পৃথিবীর অন্যতম ব্যয়বহুল আলোকবাতিতে বাংলাদেশকে উপস্থাপন মুগ্ধ করেছে বাংলাদেশিদের। উচ্ছ্বাসে, উদ্দীপনায় ফটোসেশনে মাতেন প্রবাসীরা। অস্ট্রেলিয়ায় এ যেন এক দেশীয় আমেজ, এক গৌরবান্বিত সন্ধ্যা। 

আর এর নেপথ্যে কাজ করেন পার্থের বাংলাদেশি কমিউনিটির মাদার সংগঠন বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়া অ্যাসোসিয়েশন অব ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া (বাওয়া)। মূলত মুক্তিযুদ্ধের তাৎপর্য ও পৃথিবীর এক লড়াকু জাতির সমৃদ্ধ ইতিহাস তুলে ধরতে পার্থের স্থানীয় সরকারের সহায়তায় ‘বিজয়ের আনন্দে পার্থবাসী-বাংলাদেশি’ শিরোনামের এই আয়োজন করে সংগঠনটি। সরেজমিনে দেখা যায়, অস্ট্রেলিয়ার ঐতিহাসিক তৃতীয় বৃহত্তম স্থাপনা অপটাস স্টেডিয়াম বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার রঙে আলোকিত করা হয়। আলোয় আলোয় ফুটে ওঠে বাংলাদেশের প্রতিকৃতি। এই আলোকসজ্জার ব্যাপ্তি ছিল সন্ধ্যা থেকে সকাল পর্যন্ত ।

আগত অতিথিদের একজন বলেন, আমরা সপরিবারে এসেছি। আরেক বন্ধুর ফেসবুকে ছবি দেখে অবাক হয়েছি, প্রথমে ভেবেছিলাম ক্রিসমাস লাইটিং নাকি! না, জানতে পারলাম সত্যিই আমাদের দেশকে উৎসর্গ করা হয়েছে আজকের এ আয়োজন। দেশকে নিয়ে গর্ব হচ্ছে। 

সংগঠনটির সভাপতি শাহেদীন শহীদ রাজু বলেন, পশ্চিম অস্ট্রেলিয়াতে প্রথমবারের মতো এ রকম কোনো অনুষ্ঠান হয়েছে। সরকার খুব আন্তরিকভাবে আমাদের সহযোগিতা করেছে।

ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার নতুন প্রজন্মের বাংলাদেশিসহ অন্যান্য সম্প্রদায়কে মহান স্বাধীনতাযুদ্ধের ইতিহাস জানাতে উৎসাহিত করবে এই আয়োজন, এমনটা মনে করেন প্রবাসী বাঙালিরা।

বিষয়: পার্থ

আরও পড়ুন

avertisements 2