avertisements 2

১৪ বছর বয়স থেকেই পান্নাকে ভোগ করতো মোবাশ্বির, ক্ষোভে করলো লাশ

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশ: ১২:০০ এএম, ২৯ সেপ্টেম্বর, বুধবার,২০২১ | আপডেট: ১১:৫০ এএম, ২৪ জানুয়ারী,সোমবার,২০২২

Text

পান্নার বয়স যখন মাত্র ১৪ বছর, তখন থেকেই তার প্রতি কুনজর ছিল আব্দুল হক মোবাশ্বিরের। ৫৯ বছর বয়সী এই বৃ'দ্ধা পান্নাকে স্ত্রীর মতো ভোগ করে আসছিলেন; কয়েকবার গ'র্ভপাতও ঘটে।

এসব অত্যাচার সহ্য না করতে পরেই মোবাশ্বিরকে খু'ন করেন ওই তরুণী (বর্তমান বয়স ১৯)। গ্রে'ফতারের পরপরই রোববার পান্না বেগম পুলিশকে খু'নের ঘটনা বলেন। এর পরপরই আ'দালতে গিয়ে হ'ত্যার কারণসহ সব রহস্য স্বীকার করে জবানব'ন্দি দেন। সিলেট মহানগর পুলিশের মুখপাত্র বিএম আশরাফ উল্যাহ তাহের এ তথ্য জানিয়েছেন। ১৯ বছরের তরুণী পান্না বেগম আ'দালতে হ'ত্যার দায় স্বীকার করেছে। তিনি আ'দালতে জানান- আপ'ত্তিকর ভিডিও ধারণের পর জিম্মি করায় তিনি

মোবাশ্বিরকে খু'ন করেন। পান্না তার স্বীকারোক্তিতে বলেছেন, মোবাশ্বির আপাদ-মস্তক একটা ল'ম্পট। ম'দ খেয়ে নারী নিয়ে ফুর্তি করাই ছিল তার নে'শা। মাত্র ১৩-১৪ বছর বয়সে আমাকে যৌ'ন নি'পী'ড়ন শুরু করে। এরপর সেসব অ’পকর্মের ভিডিও রেকর্ড করে রাখে মোবাইলে।

ওই ভিডিও দেখিয়ে জিম্মি ও পরবর্তীতে বিয়ে করে বিদেশে নেয়ার আশ্বা'স দিয়ে স্ত্রীর মতো ভোগ করতে থাকে। পান্না তার স্বীকারোক্তিতে জানান, বয়সবৈষম্য, নিজের স্ত্রী-সন্তান থাকা সত্ত্বেও মোবাশ্বির তাকে নানা প্র'লোভনে বিয়ে করেন। অথচ প্রায় ৫ বছরেও তিনি সামাজিকভাবে স্ত্রীর স্বীকৃতি দেননি। দুই দফায় গ'র্ভের সন্তান নষ্ট করে ফেলে।

অথচ লন্ডনে সন্তান রেখে আসা প্রথম স্ত্রীর স'ঙ্গে সংসার করছেন। বিয়ের পরও স্ত্রীর মর'্যাদা না পেলে তাকে রেখে লাভ কী, এমন ধারণা থেকে মোবাশ্বিরকে খু'ন করেন পান্না। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টায় মোবাশ্বিরের মর'দে'হ উ'দ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় মোবাশ্বিরের বড়ভাই মুহিবুল হক দক্ষিণ সুরমা থানায় মা'মলা দায়ের করেন।

মোবাশ্বির লন্ডন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবেদ রাজা ও সিলেট জে'লা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মর'হু’ম তালাত আজিজের মেজো ভাই। মোবাশ্বিরও লন্ডনে থাকতেন। গত কয়েক বছর তিনি দেশে অবস্থান করছিলেন লন্ডনে স্ত্রী-সন্তান রেখে।

বিষয়:

আরও পড়ুন

avertisements 2