avertisements 2

কুমির চাষে আবার ও আশার আলো দেখাচ্ছে ভালুকার রেপটাইলস ফার্ম

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: ১২:০০ এএম, ১২ এপ্রিল,মঙ্গলবার,২০২২ | আপডেট: ০৭:৪৫ এএম, ২১ মে,শনিবার,২০২২

Text

বাংলাদেশ কৃষিভিত্তিক দেশ। শস্য চাষের সাথে পশু পালন দিন দিন আবশ্যিক হয়ে উঠছে। দেশে গরু, ছাগল, মহিষ, ভেড়াসহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী লালন করা হয়। আর এরই অংশ হিসেবে প্রাণীজগতের অন্যতম নাম কুমির চাষ দেশে এখন ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে এতদিন গার্মেন্টস শিল্প একচেটিয়া দখল করে ছিলো, এরপরে বিভিন্ন শিল্প ও কৃষিজ পণ্য, মৎস্যজাত ও ওষুধি দ্রব্য। কিন্তু এ ধারাবাহিকতার তালিকায় শ্রীঘ্রই ব্যাপক পরিবর্তন নিয়ে আসবে বাংলাদেশ ব্যবসায়িক ভিত্তিতে কুমির চাষ। মাত্র কয়েক বছরের মধ্যেই কয়েকগুণ মুনাফা আয় সম্ভব। ময়মনসিংহের ভালুকায় অবস্থিত "রেপটাইলস ফার্ম লি." এর উৎকৃষ্ট উদাহরণ।

ময়মনসিংহ শহরের অদূরে অবস্থিত ভালুকা একটি ছোট শহর। এর তীর ঘেঁষে মাত্র ১৫ একর জমির উপর গড়ে উঠেছে "রেপটাইলস ফার্ম লি."। ২০০৪ সালে ডিসেম্বর মাসে মালয়েশিয়া থেকে ৭৫টি বয়স্ক কুমির নিয়ে মোস্তাক আহমেদ ও মেজবাউল হকের ব্যক্তিগত উদ্যোগে ও বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক সহযোগিতায় এই কুমির ফার্মের অগ্রযাত্রা শুরু হয়। এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৫০৭টি কুমিরের চামড়া রফতানি করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

২০১৮ সাল পর্যন্ত সফলতার সাথে পরিচালিত হয়ে এর কুমিরের  সংখ্যা দাঁড়ায় ২৫০০ টি । পরবর্তীতে সঠিক সিদ্ধান্ত, পরিচালনায় অনিয়মের কারণে ও পর্যাপ্ত বিনিয়োগের অভাবে ফার্মটি বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। মারা যেতে থাকে একের পর এক কুমির।
 
কুমিরগুলোর জীবন বাঁচাতে, পাশাপাশি খামার টিকে দক্ষতার সাথে সচল রাখতে হাইকোর্ট হস্তক্ষেপ করে। কুমির বিশেষজ্ঞ ও বিশিষ্টজনদের নিয়ে ছয় সদস্যের পরিচালনা পর্ষদ গঠন করে। দায়িত্ব গ্রহনের পর পরিচালনা পর্ষদের সকলে অত্যান্ত দক্ষতা ও দায়িত্বশীলতার সাথে কাজ করছে। বিশেষত বর্তমান ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন কুমির বিশেষজ্ঞ এনাম হকের সঠিক দিক নির্দেশনায় রেপটাইলস ফার্ম   পুনর্জাগরণের চলমান কার্যক্রমে কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা  অত্যান্ত দক্ষতা ও নিষ্ঠার সাথে দ্বায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি পরিচালনা পর্ষদকে সাথে ফার্মটির উন্নয়নে ব্যাপক পরিকল্পনা গ্রহন করেছেন, এর পাশাপাশি  ফার্মটি আন্তর্জাতিক মানের  পর্যটন কেন্দ্র হিসাবে গড়ে তোলার আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।
সংশ্লিষ্ট সকলের বিশ্বাস এনাম হকের মতো  আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন কুমির বিশেষজ্ঞের দক্ষ ও নৈতিকতাপূর্ণ নেতৃত্বে রেপটাইলস ফার্ম দায়মুক্তি হয়ে আবারও শীঘ্রই বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে ও দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে। 

অন্যান্য কয়েক সেক্টরের বিভিন্ন ভাইরাল রোগের চরম আতঙ্ক থাকলেও এই সেক্টরে তা একেবারেই নেই। তাই অপার সম্ভাবনার এই ফার্মটি একটু পৃষ্টপোষকতা পেলে কোটি কোটি  টাকা বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা সম্ভব। তবে এর জন্য সরকারি ও বেসরকারি আর্থিক সহযোগিতা একান্ত কাম্য। 
 

আরও পড়ুন

avertisements 2