avertisements 2

মামুনুল হককে রিমান্ডে নিতে চায় সিআইডিও

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশ: ০৯:০৪ এএম, ২১ এপ্রিল, বুধবার,২০২১ | আপডেট: ০৪:২৫ এএম, ১৫ মে,শনিবার,২০২১

Text

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সন্ত্রাসবিরোধী আইনে করা একটি মামলা তদন্ত করতে গিয়ে হেফাজত নেতা মামুনুল হকের সম্পৃক্ততা পেয়েছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। তাকে ওই মমামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে রিমান্ডে আনতে চায় বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি। মামুনুল হক বর্তমানে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের রিমান্ডে রয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল)  দুপুরে রাজধানীর মালিবাগে সিআইডির সদর দফতরে তদন্ত সংস্থাটির সিআইডি প্রধান ব্যারিস্টার মাহবুবুর রহমান। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

এছাড়াও গত মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে হেফাজতের আন্দোলনে দেশের বিভিন্ন জেলায় অগ্নিসংযোগ, হামলা ও ভাঙচুর হয়েছে।  এসব ঘটনার ইন্ধন ও নির্দেশদাতা এবং সরাসরি অংশগ্রহণকারীদের আইনের আওতায় আনার কথা জানিয়েছেন সিআইডি প্রধান। তিনি বলেন, ‘আমরা নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, কিশোরগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চট্টগ্রাম জেলার ২৩টি মামলার তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছি। আমাদের তদন্তের ভালো একটি সেটাপ রয়েছে। আমাদের সাইবার এক্সপার্ট, ডিএনএ, ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ রয়েছে। তারা ভিডিও ফুটেজগুলো দেখে শনাক্ত করার চেষ্টা করছে যে, কারা কারা এর সঙ্গে জড়িত রয়েছেন।’

ব্যারিস্টার মাহবুবুর রহমান বলেন,  ‘কারও দাবি-দাওয়া থাকতে পারে। তবে সেই দাবি আদায়ের গণতান্ত্রিক উপায় রয়েছে। কিন্তু  বেআইনি প্রক্রিয়ায় দাবি আদায়ের কোনও সুযোগ নেই। সবাইকে আইন মানতে হবে। অন্তোষের প্রকাশ ভাঙচুর অগ্নিসংযোগ হতে পারে না।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘটনায় সরকারি দলের কারও সম্পৃক্ততা পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে কিনা­–জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘কারও পরিচয় দেখে আমরা কাজ করি না। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

হেফাজতের নাশকতার সময় আগ্নেয়াস্ত্র ও বিস্ফোরক ব্যবহারের বিষয়ে তিনি বলেন,  ‘হেফাজত ইসলামের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে অনেক মামলা রয়েছে। আমরা সেগুলো তদন্ত করে দেখবো। সেই তদন্তে যদি কারও কাছে অস্ত্র পাওয়া যায় সেগুলো আমরা উদ্ধার  করবো।’

বিষয়:

আরও পড়ুন

avertisements 2