avertisements 2

‘হেফাজত, জামায়াত-বিএনপি এক দল, এদের বিশদাঁত ভেঙ্গে দেওয়া হবে’

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশ: ০৯:৪৪ পিএম, ১৮ এপ্রিল,রবিবার,২০২১ | আপডেট: ০৪:০৩ পিএম, ১৫ মে,শনিবার,২০২১

Text

হেফাজত জামায়াত-বিএনপির বি টিম। এরা প্রত্যেকেই স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি। যারা হেফাজতে আছে তারা সংবিধানকে মানতে চায়না, তারা জাতীয় সংঙ্গীত গাইতে চায়না, তারা জাতীয় পতাকাকে সম্মান করতে চায়না। এগুলো বিএনপির নেতৃত্বে শক্ত দানা বেঁধেছে।

২০১৩ সালে যেভাবে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে সাজা দেওয়া হয়েছে। এই ধর্ম ব্যবসায়ী যারা রাষ্ট্রীয় সম্পদ নষ্ট করে এই দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র হিসেবে পরিণত করতে চায় তাদেরকেও আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। তাদের বিষ দাঁত উপড়ে ফেলা হবে।’

শনিবার বেলা সাড়ে এগারটার দিকে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের স্বল্প পরিসরের অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ।

হানিফ আরো বলেন, বাংলাদেশকে একটি অস্থিশীল রাষ্ট্র হিসেবে বহিঃবিশ্বের কাছে প্রচার করার জন্য পরিকল্পিতভাবে তারা রাষ্ট্রীয় সম্পত্তি ধ্বংস করেছে। যারা রাষ্ট্রকে নিজের বলে মনে করতে পারে না তারাই এমন করতে পারে।

সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নির্বাচনী প্রচারের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ দারিদ্রতা নিয়ে যা বলেছেন সে বিষয়টি আমাদের বিবেচ্য বিষয় নয়। বাংলাদেশ যে গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে তাতে ২০৩১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে বাংলাদেশ।

এর আগে মুজিবনগর স্মৃতি সৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলী জানানোর পর মুজিবনগরে নির্মিত শেখ হাসিনা মঞ্চে দাঁড়িয়ে জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন তিনি দলীয় পতাকা এবং মাহাবুব-উল আলম হানিফ জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন।

উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান খোকন, জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খাঁন, পুলিশ সুপার এসএম মুরাদ আলী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্জ্ব মোঃ গোলাম রসুল, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও গাংনী উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল খালেক, মেহেরপুর পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন, সদও উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. ইয়ারুল ইসলাম প্রমূখ।

বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে স্বল্প পরিসরে মুজিবনগর দিবস পালনের অংশ হিসেবে স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, পুলিশ ও আনসারদের একটি চৌকস দল কর্তৃক রাষ্ট্রিয় অতিথিদের গার্ড অব অনার প্রদান শেষে মঞ্চে কোন আনুষ্ঠানিকাত না রেখে শুধুমাত্র প্রেস ব্রিফিং এ অংশ নেন মাহবুব-উল আলম হানিফ।

এর আগে সকাল ৬টায় জেলা প্রশাসক ড.মোহাম্মদ মুনছুর আলম খান মুজিব নগর স্মৃতি সৌধে পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিবসটির সুচনা করেন।

বিষয়:

আরও পড়ুন

avertisements 2