Main Menu

বিশ্বাসীদের প্রার্থনার জবাব দিয়েছেন স্রষ্টা!!

প্রার্থনালয়ে ধর্মসভাতে ১ জুন ২০২০ থেকে কড়াকড়ি সামাজিক দূরত্বের বিধি অনুসরন করে ৫০ জন মানুষের সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস্ স্টেট সরকার। তবে চার্চে বা উপাসনালয়ে এখনও সম্মিলিত সংগীত পরিবেশন করা যাবেনা। কোনো খাবার প্লেট সরবরাহ বা সংগ্রহ করা যাবেনা।

ধর্মবিশ্বাসীদের সরকারের ওপর বর্ধিত হারে চাপ ছিলো। এমনকি নিউ সাউথ ওয়েলস্ স্টেট গভর্নমেন্টের নিজ দলীয় সংসদ সদস্যদের প্রিমিয়ারের ওপর চাপ ছিলো যাতে এই নতুন বিধি পাব, ক্লাব এবং রেঁস্তোরায় কার্যকর হয়।

নতুন বিধি অনুযায়ী ০১ জুন সোমবার থেকে বিয়ের অনুষ্ঠান এবং অন্তেষ্টিক্রিয়ার অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ ৫০ জন (সামাজিক দূরত্ব বিধি অনুসরন করে) অংশগ্রহন করতে পারবেন; কিন্তু খাবার পরিবেশন করা যাবে মাত্র ২০ জনকে।

“ এই সার্ভিসসমূহ আমাদের ব্যক্তি, সামাজিক এবং পারিবারিক জীবনে অত্যন্ত গুরুত্ব বহন করে। বিধি শিথিল করে দেয়া হলেও একে অপরের জীবন রক্ষার ব্যাপারে আমরা সতর্ক থাকবো। এটি বিশেষভাবে প্রনিধানযোগ্য যে প্রার্থনাকারীগন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন।”-প্রিমিয়ার গ্লাডিস

ক্ষমতাসীন লিবারেল পার্টির একজন সংসদ সদস্য, এমনকি রাজনীতির উভয়পক্ষ চার্চ, মসজিদ এবং সিনাগগ থেকে কঠিন বিধি শিথিল করার ব্যাপারে কেবিনেটকে সম্মত করিয়েছেন।

লিবারেল এমপি নাথানিয়েল স্মিথ এক চিঠিতে প্রিমিয়ারকে বলেছেন চার্চ বন্ধ থাকায় তাঁর সংসদীয় এলাকার বিশ্বাসীগন মানসিক কষ্টে রয়েছেন। তিনি আরও বলেন উপাসনালয় জীবনের কোনো বিকল্প ব্যবহার নয় বরং বিশ্বাসীগনের জীবনের অপরিহার্য অংশ। তিনি আরও বলেন যে উপাসনালয়গুলো মানুষের কাছে তাদের নিত্য প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য ক্লিনিক বা সুপার মার্কেটের মতোই সমভাবে গুরুত্বপূর্ণ।
 


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT