Main Menu

ছোটবেলায় কচুরিপানার ফুল খেয়েছি, এটা খুব মিস করি: পরিকল্পনামন্ত্রী

‘গরু কচুরিপানা খেতে পারলে আমরা কেন পারব না’ বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। মন্ত্রী বলেন, ‘আমি বলেছি, কচুরিপানা নিয়ে গবেষণা করে দেখেন। এবং হাস্যরস করে বলেছি- এটা খাওয়া যায় কিনা। আমি জিজ্ঞাসা করলাম, এটা খাওয়াতে কোনো ক্ষতি আছে কিনা, একজন ভদ্রলোক বললেন- গরু ছাগল তো খায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘কচুরিপানার ফুল তো আমি নিজে খেয়েছি। বেসনে ডুবিয়ে আমার মা ছোটবেলায় ভাজতেন, চ্যাপটা করে। খুব চমৎকার হয়। এটা খুব মিস করি।’

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলনকক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

এমএ মান্নান বলেন, আগে বইতে পড়তাম কাঁঠালের আমসত্ত্ব। কাঁঠালের আমসত্ত্ব এখন বাস্তবেই আছে। আমি উইটাই বলেছি আর কিছু নয়।

‘আমি কি বলেছি, বাংলার মানুষ সব কচুরিপানা খান, ননসেন্স। আচ্ছা, আমি কি বাংলার মানুষ নই, আমার মা-বাবা কি বাংলার মানুষ নয়। এটা কী ধরনের কথা হলো।’

প্রসঙ্গত, গতকাল সোমবার শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলনকক্ষে রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট ফোরামের অনুষ্ঠানে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘কচুরিপানা নিয়ে কিছু করা যায় কিনা, কচুরিপানার পাতা খাওয়া যায় না কোনোমতে? গরু তো খায়। গরু খেতে পারলে আমরা খেতে পারব না কেন?’

 


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT