avertisements

অস্ট্রেলিয়ায় অবস্হানরত চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত্ব সংবাদমাধ্যমের চার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে তল্লাশি

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশ: ০১:২০ পিএম, ১৫ সেপ্টেম্বর,মঙ্গলবার,২০২০ | আপডেট: ০৭:১০ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর,রবিবার,২০২০

Text

চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত্ব সংবাদমাধ্যমের চার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে তল্লাশি চালানোর কথা নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া। দেশটি জানিয়েছে, গত জুনে বিদেশি হস্তক্ষেপের তদন্তে নেমে সুনির্দিষ্ট প্রমাণের ভিত্তিতে ওই তল্লাশি চালানো হয়। ওই অভিযানের খবর এই সপ্তাহে প্রথম প্রকাশ করে চীন। এর আগে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়ে চীন ছেড়ে যায় অস্ট্রেলিয়ার দুই সাংবাদিক। বেইজিং ও সাংহাইয়ে ওই দুই সাংবাদিকের বাড়িতে চীনা কর্তৃপক্ষ অভিযান চালানোর পর তারা কূটনৈতিক সুরক্ষা প্রার্থনা করে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।


করোনাভাইরাসের উদ্ভব নিয়ে ক্যানবেরা আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বান জানানোর পর দুই শীর্ষ বাণিজ্য সহযোগী অস্ট্রেলিয়া ও চীনের সম্পর্কের অবনতি হতে শুরু করে। ক্ষুব্ধ হয়ে চীন অস্ট্রেলিয়ার ওপর বাণিজ্যিক চাপ প্রয়োগ শুরু করে। অপরদিকে অস্ট্রেলিয়া বিদেশি বিনিয়োগের জন্য নিরাপত্তা পরীক্ষা বাড়িয়ে দেয়।


এসব উত্তেজনার মধ্যে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের জেরে চীন ছেড়ে যেতে বাধ্য হয় অস্ট্রেলিয়ান ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশনের (এবিসি)সাংবাদিক বিল বার্টলস এবং অস্ট্রেলিয়ান ফিনান্সিয়াল রিভিউ’র (এএফআর) সাংবাদিক মাইক স্মিথ। আর চীনেন আটক হন দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত্ব সম্প্রচারমাধ্যম  সিজিটিএন’র সাংবাদিক ও অস্ট্রেলীয় নাগরিক চেং লেই। এনিয়ে সমালোচনার মুখে অস্ট্রেলিয়ায় চীনা সাংবাদিকদের তল্লাশির মুখে পড়ার কথা জানায় বেইজিং।

ওই ঘটনার বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে অস্ট্রেলিয়ার বাণিজ্যমন্ত্রী সিমন বার্মিংহাম বলেন, আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়েছে তার দেশের নিরাপত্তা সংস্থা। এবিসি নিউজ-এ দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ায় উদ্ভূত বিদেশি হস্তক্ষেপের উদ্বেগ থেকে আমরা যথাযথ ব্যবস্থা নিয়েছি। নির্ভেজাল প্রমাণের ভিত্তিতেই তা করা হয়েছে।’

এবিসি নিউজের আলাদা খবরে বলা হয়, চীনা কমিউনিস্ট পার্টি নিউ সাউথ ওয়েলসের পার্লামেন্টে হস্তক্ষেপের চেষ্টা করছে এমন অভিযোগের তদন্তের অংশ হিসেবে চীনের চার সাংবাদিকের ওপর তল্লাশি চালানো হয়।

বিষয়: সাংবাদিক

আরও পড়ুন

avertisements