Main Menu

অস্ট্রেলিয়াসহ সারা বিশ্বে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে টানা চতুর্থ দিনের মতো এক হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ গেছে যুক্তরাষ্ট্রে। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন এক হাজার ৬৭ জন; একই সময়ে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৬৮ হাজারের বেশি মানুষ।

এর আগে, বৃহস্পতিবার এক হাজার ১৪০, বুধবার এক হাজার ১৩৫, মঙ্গলবার এক হাজার ১৪১ জনের প্রাণ গেছে করোনায়। করোনার এই মহামারি নিয়ে হোয়াইট হাউসের একজন উপদেষ্টা বলেছেন, দেশটির দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোতে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে।

বিশ্বে সবচেয়ে ভয়াবহ প্রকোপের মধ্যে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪১ লাখ ৭৪ হাজার ৪৩৭ জনে পৌঁছেছে এবং মারা গেছেন ১ লাখ ৪৬ হাজার ৩৯১ জন। দেশটির অ্যারিজোনা, ক্যালিফোর্নিয়া, ফ্লোরিডা ও টেক্সাসের বেশিরভাগ এলাকায় করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে।

ব্রাজিল
ব্রাজিলে টানা চারদিন ধরে প্রতিদিনই ৫০ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। লাতিন আমেরিকার এই দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েই চলেছে। খবর সিএনএন। 

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, শনিবার নতুন করে দেশটিতে আরও ৫১ হাজার ১৪৭ জন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। 

ফলে দেশটিতে বর্তমানে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৩ লাখ ৯৬ হাজারের বেশি। গত কয়েকদিনে দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই ৫০ হাজার পার করেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, এক সপ্তাহেই দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩ লাখ ২১ হাজার ৬২৩।  

মন্ত্রণালয়ের বিবৃতি অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মারা গেছে ১ হাজার ২১১ জন। ফলে ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত মারা গেছে মোট ৮৬ হাজার ৪৪৯ জন। 

ওয়ার্ল্ডওমিটারের পরিসংখ্যান বলছে, ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২৩ লাখ ৯৬ হাজার ৪৩৪। এর মধ্যে মারা গেছে ৮৬ হাজার ৪৯৬ জন।

দেশটিতে ইতোমধ্যেই করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছে ১৬ লাখ ১৭ হাজার ৪৮০ জন। সেখানে বর্তমানে করোনার অ্যাক্টিভ কেস ৬ লাখ ৯২ হাজার ৪৫৮। অপরদিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে ৮ হাজার ৩১৮ জন। 

অস্ট্রেলিয়া
করোনা প্রতিরোধে সফল হিসেবে বিবেচিত অস্ট্রেলিয়ায় নতুন করে ভাইরাসটির সংক্রমণ বাড়ছে। দ্বিতীয় দফায় সংক্রমণ শুরুর পর দেশটিতে একদিনে সর্বাধিক মৃত্যুর রেকর্ড হয়েছে গতদিন। এছাড়া নাতুন করে কোভিড-১৯ পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত মানুষের সংখ্যাও বাড়ছে। সবগুলো মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে ভিক্টোরিয়া রাজ্যে।

সরকারি তথ্যের বরাতে রোববার বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে দেশটিতে ১০ কোভিড-১৯ রোগী প্রাণ হারিয়েছেন, যা অস্ট্রেলিয়ায় করোনার সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ প্রাণহানি। একই সময়ে আরও ৪৫৯ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন।

তবে অন্যান্য দেশের তুলনায় অস্ট্রেলিয়ায় করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু অনেক কম হলেও নতুন করে ভাইরাসটির বিস্তারের গতি বাড়তে থাকার প্রেক্ষিতে মেলবোর্নসহ ভিক্টোরিয়া লকডাউন করা হয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা খুব কম হলেও ভাইরাসটির ঊর্ধ্বমূখী সংক্রমণ নিয়ে উদ্বিগ্ন অস্ট্রেলিয়া।

ইরান

ইরানে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও দুই শতাধিক মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। এছাড়া নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজারের বেশি। রোববার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মে মাসের মাঝামাঝি সময়ের পর থেকে দেশটিতে ফের করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা। রোববার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২১৬ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা; এ নিয়ে প্রাণহানির সংখ্যা ১৫ হাজার ৭০০ জনে পৌঁছেছে।

করোনা সংক্রমণ কমে আসায় ইরান গত এপ্রিল থেকে লকডাউন শিথিল করা শুরু করে। ওই সময় দেশটির মসজিদ, দোকান-পাট ও সরকারি পার্ক খুলে দেয়া হয়। পাশাপাশি আন্তঃপ্রাদেশিক চলাচলের অনুমতি দেয়া হয়।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT