Main Menu

প্রিয়, ফুল খেলবার দিন নয় অদ্য

 মো: আসাদুজ্জামানঃ এবারের স্বাধীনতা দিবসে কবি সুভাষ মুখোপাধ্যয়ের লেখা উক্ত পংক্তিমালা বারবার স্বগোক্তি করেছি ।  স্বাধীনতার ৪৯তম বছরে বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার রুমে বন্দির ঝুলন্ত লাশ, লাশের গায়ে নির্যাতনের চিহ্নের খবর আমাকে ব্যাথিত করেছে, এটা সরকারের টিকে থাকার জন্য পুলিশ নির্ভরতার ফসল । এধরনের কাস্টডিয়াল ডেথ এর জন্য বরগুনা থানার ওসিকে তাৎক্ষনিকভাবে গ্রেফতার করা পুলিশের আইনি এবং নৈতিক দায়িত্ব ছিলো , কিন্ত তা হয়নি ।  রমনা থানা হেফাজতে বহুকাল আগে হত্যার শিকার হওয়া অরুন হত্যা মামলায়, চট্রগ্রামের থানা হেফাজতে সীমা হত্যা মামলায় কিংবা দিনাজপুরে পুলিশ হেফাজতে ইয়াসমিন ধর্ষন ও হত্যা মামলার রায়ে কাস্টডিয়াল ডেথ কিংবা অফেন্স বিষয়ে আমাদের তৎকালীন মাননীয় বিচারপতিগণ সেই ধরনের আইনি সূত্র এবং ভিত্তি তৈরী করে দিয়ছিলেন । অবশ্য বর্তমান বিচার ব্যবস্থা সেটা মানবে কি না তা আমার জানা নেই , খুব বেশী আশাও করতে পারি না । এই মার্চ মাসেই, গত ১০ মার্চ ২০২০ ইং তারিখ থেকে আমাদের বন্ধু, ‘৯০ এর গনঅভ্যূথ্যানের সহযোদ্ধা সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজল নিখোঁজ হয়েছে! আজও তাঁর স্বজন-বন্ধুরা তাকে খুঁজে ফিরছে কিন্ত প্রশাসন নির্বিকার । এগুলো সবই কি স্বাধীন দেশে কাম্য ? স্বাধীনতার মাস কিংবা স্বাধীনতা দিবসের উপহার ? এ সব সবকিছুই আমাকে কষ্ট দিচ্ছে , যন্ত্রনায় দগ্ধ হচ্ছি , মনে হচ্ছে এগুলোই কি স্বাধীনতার সোনালী ফসল ? দ্বিধান্বিত হয়ে ভাবছি এই সবই কি স্বাধীনতার স্বপ্ন ছিলো ?

বৈশ্বিক দৈব দূর্বিপাক বা আইনের ভাষায় ফোর্সমেজার বা এ্যাক্ট অফ গড এর কল্যানে ভল্গা থেকে মিসিসিপি, এভারেষ্ট থেকে আল্পস, প্রশান্ত থেকে আটলান্টিক পর্যন্ত আজ প্যারালাইজড । মানব সভ্যতা , বিজ্ঞান এবং রাজনীতি আজ কঠিন এক সময়ের মুখোমুখি । বিজ্ঞান আজ নির্বাক , চিকিৎসা বিজ্ঞান অসহায় , বাতাসে বিষাক্ত ভাইরাসের বিচরণ ।তার মধ্যেও বাংলাদেশের মানুষের উপর জুলুম, কাস্টডিয়াল ডেথ, রাস্তায় লাঠিপেটা করা, ভূখা নাঙ্গা মানুষের অসহায়ত্ব আমাকে কষ্ট দিচ্ছে , ভীষন কষ্ট পাচ্ছি । অজানা এক শংকায় ভিতরটা কুঁকড়ে যাচ্ছে । সে শংকা মৃত্যুর শংকা নয়। কারন, বিশ্বাস করি , জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যুই সেখানে শেষ কথা নয় । মৃত্যু অবধারিত সত্য , এটাকে আলিঙ্গন করতে আমার কোন ভয় নেই , একজন সাধারন মানুষ হিসাবে মৃত্যু নিয়ে এটাই আমার ভাবনা । তবে, সমবেত সকলের মত আমিও চাই সেই মৃত্যু স্বাভাবিক হোক ! কোন অপঘাত কিংবা কাস্টডিয়াল নির্যাতনের ফলে মৃত্যু নয় , কোন স্বৈরাচারের পেটোয়া বাহিনীর হাতে নির্যাতিত হয়ে নয় ।  আমার ভয়, শংকা কিংবা উদ্বেগের কারন হলো করনাপরবর্তী বাংলাদেশের অর্থনৈতিক, সামাজিক, মানবিক পরিস্থিতির বিপর্যয়ের কথা ভেবে ! চোখ বন্ধ করলে অনুভব করতে পারছি এখানে বেকারত্ব আছে তা বহুগুন বাড়বে, এখানে অনাহারী-অর্ধাহারী আছে তা বাড়তে থাকবে , চুরি-ডাকাতি-ছিনতাই- রাহাজানি বাড়বে, সামাজিক ভারসাম্য ক্ষতিগ্রস্ত হবে, পুলিশ সহ শাষক গোষ্ঠী ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আরো নিষ্ঠুর ও অমানবিক হবে , হয়তো শকুনেরা খামচে ধরবে বাংলাদেশের মানচিত্রও !পরিস্থিতির কারণে প্রিয়জনও হয়ে যাবে পর ! সেই শংকার কথা ভাবছি, সেই অশনী সংকেতের কথা ভাবছি । 

আবার এও ভাবছি যে , এটা কি ম্যালথাসের জনসংখ্যা তত্বের প্রতিফলন যেখানে তিনি বলেছেন জ্যামিতিক হারে বৃদ্ধি পাওয়া জনসংখ্যাকে প্রাকৃতিকভাবে দৈব দূর্বিপাকের মধ্যদিয়ে নিয়ন্ত্রন করা হবে ? অনেক ভাবনা মাথায় আসছে, কোনটাই সঠিক মনে হচ্ছে না । তবে, আশাবাদী মানুষ হিসাবে , একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসাবে বিশ্বাস করতে ইচ্ছে করছে করোনা ভাইরাস পরবর্তী পৃথিবী , বিশেষ করে বাংলাদেশ হবে সহনশীল, গনতান্ত্রিক, ন্যায়বিচারের এক প্রিয় মাতৃভূমি , প্রিয় স্বাধীন বাংলাদেশ ! বিশ্বাস করতে ইচ্ছে করছে করোনা পরবর্তী বাংলাদেশ হবে সবার, এখানে লুটেরাদের কবর রচনা হবে, এখানে কোন রাজনৈতিক কর্মী কিংবা নিরীহ মানুষের মৃত্যুর মিছিল হবে না, এখানে স্বৈরতন্ত্র নিপাত যাবে, এখানে মানবিক মর্যাদাবোধ এবং স্বাধীনভাবে বেঁচে থাকার প্রাসংঙ্গিকতা থাকবে ; এখানে স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টির স্বপ্ন দেখি , স্বপ্ন দেখি প্রান খুলে হাসবার-কথাবলবার-লেখবার অবারিত প্রান্তরের । তাইতো  সহযোদ্ধা বন্ধুদের, সমচিন্তার বন্ধুদের, সহকর্মী বন্ধুদের কাছে প্রত্যাশা করি করোনা পরবর্তী সমাজব্যাবস্থার জন্য প্রস্তুত হবার , আহবান জানাই সবাই যেন নিজের কাছে নিজেই দৃপ্ত শপথ নেয় নতুন বাংলাদেশ গড়ার । স্বপ্ন দেখি নতুন বাংলাদেশ গড়ার মিছিলে সবার সাথে দেখা হবে , কথা হবে মিছিলে মিছিলে , পরিবর্তনের মিছিলে, সাম্যের মিছিলে তোমাদের - আমাদের স্বপ্নের মিছিলে ।। সেই জন্যই বলছি, প্রিয়, ফুল খেলবার দিন নয় অদ্য !!
       লেখকঃ আইনজীবি
      ঢাকা - ২৭ মার্চ ২০২০


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT