Main Menu

কালোজাদু ও সাদা চামড়ার 'কৃষ্ণাঙ্গ'দের অভিশপ্ত জীবন

আফ্রিকায় শ্বেতাঙ্গরাও আছেন। এবি ডিভিলিয়ার্স কিংবা ব্রেন্ডন টেলরদের মতো আফ্রিকান শ্বেতাঙ্গদের কে না চেনেন। কিন্তু সাদা চামড়ার কৃষ্ণাঙ্গ! এও কি সম্ভব? হ্যাঁ, খানিকটা কাঁঠালের আমসত্বের মতো শোনাচ্ছে বৈকি। তবে এক অর্থে তেমন কিছুই কিন্তু অস্তিমান এই বিচিত্র বাস্তবতায়।

ধবধবে সাদা গায়ের রঙ, চুল এমনকি চোখের পাপড়িও সাদা, পিটপিট করে তাকায়, কেউ বা হাতে সাদাছড়ি নিয়ে চলে। কোনো না কোনো সময় এ ধরনের ব্যতিক্রমী মানুষ হয়ত পাঠকদের কারো চোখেও পড়েছে। আদতে এটি একটি রোগ। নাম আলবিনিজম। এ রোগে আক্রান্তদের বলে আলবিনো। এ রোগের দরুন দেহে মেলানিন নামক একধরনের রঞ্জকের তৈরি ব্যহত হয়। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছেন এরা, প্রতি ১৭,০০০ থেকে ২০,০০০ জনে একজন। তবে আফ্রিকায় এই হার ৫০০০ থেকে ১৫,০০০ জনে একজন। আফ্রিকান আলবিনোরাই আজকের লেখার 'সাদা চামড়ার কৃষ্ণাঙ্গ'।

যে মেলানিন সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি থেকে আমাদের সুরক্ষা দেয়, যে অতিবেগুনি রশ্মিকে ধরা হয় জীবনঘাতী ক্যান্সারের অন্যতম কারণ, সেই মেলানিনই প্রায় অনুপস্থিত আলবিনোদের দেহে। দেড় ডলারের কমে যেখানে ৮০ ভাগ আফ্রিকানের দিন গুজরান হয়, সেখানে ইউরোপিয়ান আলবিনোদের মতো ১০-১৫ ডলারের সানস্ক্রিন ক্রিম মেখে বাইরে বেরোনোর সৌভাগ্য এদের হয় না। ৯০% আফ্রিকান আলবিনো তাই ৪০ বছরের বেশি বাঁচেনও না। সারা পৃথিবীতে আলবিনোদের শত্রু সূর্য। কিন্তু আফ্রিকার আলবিনোদের অতিরিক্ত একটি শত্রু রয়েছে- শিকারি। এই শিকারিদের কাছে প্রাণ না হারাবার প্রার্থনাতে তটস্থ থাকেন আলবিনোরা।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT