Main Menu

বেতনের সিংহভাগই চলে যাচ্ছে বাড়ি ভাড়ায়

রাজধানী ঢাকার ক্রমবর্ধমান সমস্যাগুলোর একটি হচ্ছে বাড়িভাড়া। বাড়িভাড়া নিয়ন্ত্রণে একটি আইন থাকলেও বেশিরভাগ বাড়িওয়ালা তা মেনে চলেন না। সাধারণত, প্রতি বছর জানুয়ারি মাস এলেই ঢাকায় বাড়িভাড়া বৃদ্ধি করেন বাড়িওয়ালারা, কিন্তু বাড়িভাড়া আইন ১৯৯১ অনুযায়ী দুই বছরের আগে কোনোভাবেই বাড়ির মালিক ভাড়া বৃদ্ধি করতে পারেন না।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ বিষয়ক সংগঠন কনজুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) একটি সমীক্ষা থেকে জানা যায়, ২৫ বছরে রাজধানীতে বাড়ি ভাড়া বেড়েছে প্রায় ৪শ’ শতাংশ। একই সময়ে নিত্যপণ্যের দাম বেড়েছে ২শ’ শতাংশ। অর্থাৎ নিত্যপণ্যের দামের তুলনায় বাড়ি ভাড়া বৃদ্ধির হার প্রায় দ্বিগুণ।

এছাড়া রয়েছে অতিরিক্ত ভাড়া আরোপ করার প্রবণতা। বাড়িভাড়া আইনে এ ব্যাপারে সুস্পষ্ট নির্দেশনা থাকলেও বাড়িওয়ালারা তা না মেনে নিজের ইচ্ছেমতো ভাড়া আরোপ করে থাকেন। বেসরকারি চাকরিজীবী আহমেদ তাহের হাসিব বলেন, আমার মত একজন সাধারণ মানুষ প্রায় ৩০ হাজার টাকা পাই। যার মধ্যে বাসা ভাড়া ১৪ হাজার আর গ্যাস, পানি, বিদ্যুৎ বিল মিলে ১৬ হাজার টাকা পড়ে। বাকি ১৪ হাজার টাকা দিয়ে সংসার চালাতে হয়। যার মধ্যে খাওয়া-দাওয়া, সন্তানের পড়ালেখার খরচ, চিকিৎসা সবই করতে হয়। সরকারের উচিত এ বিশাল সংখ্যক মানুষের কথা বিবেচনা করে বাসা ভাড়া আইন সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করা।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT