Main Menu

এবার ক্ষমতা হারাতে বসেছেন মমতা ব্যানার্জি

পশ্চিমবঙ্গে মমতা ব্যানার্জির বিদায় এবার নিশ্চিত বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পশ্চিমবঙ্গের ঝাড়গ্রামে নির্বাচনী সমাবেশে ভাষণ দেয়ার সময় তিনি সোমবার এ কথা বলেন। খবর এনডিটিভির।

মোদি বলেন, দিদি (মমতা) এখন ‘জয় শ্রীরাম’ বললেই তাদের জেলে ভরতে শুরু করে দিয়েছেন। পশ্চিমবঙ্গে রাম নাম নেয়া কি অপরাধ? আরে দিদি, ভগবান রামের কাছে সব মানুষের অহঙ্কার চূর্ণ হয়ে গেছে; আপনার অহঙ্কার আর কত দিন থাকবে? ভগবান রাম আমাদের প্রেরণা।

momota

দিদি বলছেন- বিজেপি নাকি ভগবান রামকে পোলিং এজেন্ট বানিয়ে নিয়েছে। আমি আজ দিদিকে বলতে চাই- ভগবান রাম আমাদের শিরায় শিরায় আছেন, আমাদের সংস্কারে আছেন।

মোদি আরও বলেন, তৃণমূলের দুর্নীতি সবার কাছে স্পষ্ট। এখানে যেকোনো কাজের জন্য তৃণমূলকে চাঁদা দিতে হয়।

momota

কলেজে ভর্তি, শিক্ষক নিয়োগ, ট্রান্সফার হোক- লোকেরা বলে সবক্ষেত্রে তৃণমূল চাঁদাবাজি করে। বাংলায় গণতন্ত্র নেই, এজেন্ট এবং গুণ্ডাদের দিয়ে রাজ্যে গুণ্ডাগিরি চলছে।

বিজেপির বিপুল জনসমাগম দেখে দিদি চিন্তা করতে করতে ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন। পশ্চিমবঙ্গে যা পরিস্থিতি চলছে, তাতে দিদিকে দশটির বেশি আসন পেতে দেব না।

momota-modi

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ফনির দুর্যোগ নিয়ে আমি চিন্তিত ছিলাম। পরিস্থিতির ব্যাপারে খোঁজ নিতে দুবার ফোন করেছিলাম মমতা দিদিকে। তিনি কোনো কথা বলেননি। পশ্চিমবঙ্গের মানুষের ব্যাপারে তার কোনো মাথাব্যথা নেই।

ভারতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির গাড়িবহর যখন রাস্তা দিয়ে যাচ্ছে, তখন পাশে দাঁড়িয়ে ‘জয় শ্রীরাম’ শ্লোগান দিয়েছিলেন বিজেপি সমর্থক কয়েকজন যুবক।

momota (2)

শনিবার বিকেলের ঘটনা, পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় চন্দ্রকোণার কাছে। কিন্তু এরপর যা ঘটল, তার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গী বা নিরাপত্তারক্ষীরা – কেউই প্রস্তুত ছিলেন না। শ্লোগান কানে যেতেই সঙ্গে সঙ্গে গাড়ি থামাতে বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। নিজেই গাড়ির দরজা খুলে নেমে আসেন রাস্তায়।

ততক্ষণে শ্লোগান দেওয়া যুবকরা বেগতিক বুঝে পিছু হঠতে শুরু করে দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী সে দিকে এগিয়ে গিয়ে বলতে থাকেন, “কী রে, পালাচ্ছিস কেন? আয়, আয়! পালাচ্ছিস কেন?”

momotaa

তাকে আরও বলতে শোনা যায়, “সব হরিদাস কোথাকার! গালাগালি দিচ্ছে!” গোটা দৃশ্যটাই প্রত্যক্ষদর্শীরা মোবাইল ফোনের ভিডিওতে ধারণ করেছেন, আর নিমেষে তা ছড়িয়েও পড়েছে বিভিন্ন গণমাধ্যমে ও সোশ্যাল মিডিয়াতে।

এর কিছুক্ষণ পরেই মুখ্যমন্ত্রীকে কটূক্তি করার অভিযোগে রাজ্য পুলিশ বিজেপি সমর্থক তিনজন যুবককে আটক করে। এরা প্রত্যেকেই বিজেপির সক্রিয় কর্মী হিসেবেই এলাকায় পরিচিত। তবে নির্দিষ্ট কোনও অভিযোগ ছাড়াই রবিবার সকালে তাদের ছেড়েও দেওয়া হয়েছে।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT