Main Menu

কোনদিন দেখা ও কথা হয়নি রওশন-বিদিশার

প্রয়াত সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ জীবনকালে দুটি বিয়ে করেছিলেন। এরশাদের দুই স্ত্রীর নাম রওশন ও বিদিশা। বিডি২৪লাইভ’র স্টাফ করেসপন্ডেন্ট আরেফিন সোহাগের সাথে একান্ত আলাপ হয় বিদিশা এরশাদের। এ সময় তিনি রওশন এরশাদ, জাতীয় পার্টি ও বর্তমান রাজনীতি নিয়ে নানান কথা বলেন।

**: প্রয়াত সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হোসাইন মুহাম্মদ এরশাদের স্ত্রী জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদের সাথে আপনার সম্পর্ক কেমন?
বিদিশা এরশাদ: ওনার সাথে (রওশন এরশাদ) আজ পর্যন্ত আমার কোনদিন দেখা হয়নি, এমন কি কোনদিন কথাও হয়নি। হয় তো তিনি আমার উপরে রাগ বা ক্ষোভ পুষে রেখেছেন? আমি মনে করি আমার দিক থেকে ওনাকে স্যরি বলা উচিত। যদি কোনদিন সুযোগ হয় আমি উনাকে স্যরি বলব। তাছাড়া ম্যাডাম রওশন এরশাদ এই সংসার ও পার্টির জন্য সব থেকে বেশি ত্যাগ করেছেন।

**: রওশন এরশাদের সাথে আপনার কি সাক্ষাৎ করা উচিত?
বিদিশা এরশাদ: অবশ্যই, রাজনৈতিক ভাবে আমাদের দেখা হওয়া উচিত। দলের জন্য আমাদের একত্রে বসা উচিত। এই মুহূর্তে ওনার (রওশন এরশাদ) মানসিক অবস্থা ভালো না। তবে দলের জন্য আমি ওনার সাথে বসতে চাই।

**: বর্তমান জাতীয় পার্টি নিয়ে আপনি কি বলবেন?
বিদিশা এরশাদ: মূলত এরশাদ একজন জেনারেল ছিলেন। উনার অতীত ছিল সেনাবাহিনী। আর সেনাবাহিনীই হচ্ছে প্রকৃত দেশ প্রেমিক। যেটা এরশাদ সব সময় বলতেন। সেই অর্থে তিনি সফল মানুষ। এ কারণেই হয়তো এরশাদ জেনারেল থেকে পল্লী বন্ধু হয়েছিলেন। জাতীয় পার্টিতে আরও সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত জেনারেলরা রয়েছেন, তারা কি এরশাদের মত জাপা চালাতে পারবেন? তবে সেনাবাহিনী থেকে যে আসবেন সে জাপা হোক বা যেকোন প্রতিষ্ঠানের হোক, দল ভালো চলবে। কারণ তারা সবাই শৃঙ্খল, সৎ ও আদর্শবান। আমি মনে করি জীবনের সব ক্ষেত্রে শৃঙ্খল হওয়া উচিত। তবেই সাফল্য আসবে। জাপার বর্তমান অবস্থা হ-য-ব-র-ল। তবে জাপায় এক জেনারেল থেকে আরেক জেনারেল আসতে পারে। এতে আমি কোন সমস্যা দেখতে পাচ্ছি না। রাজনীতি সবার জন্য উন্মুক্ত করা উচিত।

**: আপনি কি শিগগিরই রাজনীতিতে সক্রিয় হবেন?
বিদিশা এরশাদ: জাতীয় পার্টিতে এই মুহূর্তে না থাকলেও ভবিষ্যৎ বলে দিবে আমাকে কি করতে হবে। এরশাদের মতো তৃণমূলই আমার মূল শক্তি। আমি এরিক এরশাদের মা। জাপার অনেক নেতাকর্মী ও তৃণমূল কর্মীরা আমার সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখেন। পার্টির গুটিকয়েক লোভী নেতারা আজ আমাকে মূল্যায়ন না করলেও দেশের কোটি কোটি মানুষ আমাকে খুব ভালো ভাবে চেনেন। আর তারাই আমার মূল চালিকা শক্তি। আর এরশাদের ভালোবাসার কারণেই এটা সম্ভব হয়েছে। এরশাদের কারণেই আমি জনগণের মনের ভিতরে আছি। এটাই আমার অর্জন। আমি জনগণের ভালোবাসা নিয়ে বাঁচতে চাই। দেশ, রাষ্ট্রের প্রয়োজনে কাজ করতে চাই। দেশকে কিছু দিতে চাই।

**: আপনি কি এরশাদের আসনের উপ-নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চান?
বিদিশা এরশাদ: এটা রংপুরের মানুষই বলে দিবেন যে, তারা কাকে চাইছেন? রংপুরের মানুষ চেয়েছিল এরশাদ সাহেবের দাফন হবে রংপুরে। আমি সে ব্যাপারে তাদের প্রতি সম্মতি জানিয়েছি। তাছাড়া এরশাদ সাহেব আমাকে বলেছিলেন অনেক আগে, এই পল্লী নিবাসে যেন তাকে দাফন করা হয়। যখন তিনি মারা গেলেন। তখন পরিবারের সবাই বলছেন যে, বনানী সেনানিবাসে তাকে সমাহিত করা হবে। তখন রংপুরের মানুষরা আমার সাথে যোগাযোগ করেন। আর আমি তাদের সাথে সহমত প্রকাশ করি। তাছাড়া রংপুরবাসীর জন্য আমার ফোন ২৪ ঘন্টা খোলা থাকে। আমি সবসময়ই মানুষের ফোন রিসিভ করি।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT