Main Menu

এ কী লিখল ভারতীয় মিডিয়া? ভারত আউট

আনন্দবাজার লিখেছে

শত কোটির স্বপ্নভঙ্গ ম্যাঞ্চেস্টারে, সেমিফাইনালেই থেমে গেল ভারতের বিশ্বকাপ অভিযান বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেল ভারতের। ফিনিশার ধোনিকেও দেখা গেল না

বিশ্বকাপ অভিযান শেষ ভারতের। ধোনি-জাদেজার পার্টনারশিপ স্বপ্ন দেখিয়েছিল। ধোনি (৫০) রান আউট হয়ে ফিরতে সেই স্বপ্ন শেষ হয়ে গেল। মার্টিন গাপ্তিল একদমই ফর্মে ছিলেন না এ বারের বিশ্বকাপে। গাপ্তিলের দুরন্ত থ্রো যখন উইকেট ভেঙে দিল, তখন ক্রিজে ঢুকতে আর পাঁচ সেন্টিমিটারের মতো বাকি ছিল ধোনির। ওই পাঁচ সেন্টিমিটারের জন্যই বিশ্বকাপ ফাইনালে আর যেতে পারল না বিরাট কোহালির ভারত। শেষ পর্যন্ত টিকে থাকলে ধোনি হয়তো ফিনিশার হিসেবে ধরা দিতেন। ধোনির আগে রবীন্দ্র জাডেজা অসম্ভবকে সম্ভব করার মরিয়া একটা চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু, দিনটা ভারতের ছিল না। ভারত থামল ২২১ রানে। ১৮ রানে জিতে বিশ্বকাপের ফাইনালে পৌঁছে গেল নিউজিল্যান্ড।

মঙ্গলবার ৪৬.১ ওভারে কিউয়িরা করেছিল পাঁচ উইকেটে ২১১ রান। গতদিনের রানের সঙ্গে বুধবার নিউজিল্যান্ড যোগ করল আরও ২৮ রান। ২৪০ রান করলে ভারত পৌঁছে যাবে ফাইনালে। এই অবস্থায় ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই বিপর্যয় নামে ভারতের ব্যাটিং লাইন আপে। দুরন্ত ছন্দে থাকা রোহিত শর্মাকে (১) ফেরালেন ম্যাট হেনরি। বিশ্বকাপে পাঁচটি সেঞ্চুরি হয়ে গিয়েছে ‘হিটম্যান’-এর। ইংল্যান্ড, বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টানা তিনটি ম্যাচে সেঞ্চুরি করা রোহিত এ দিন আগেই ফিরে গেলেন। ‘ল অফ অ্যাভারেজ’ মিলে গেল তাঁর ক্ষেত্রে। বিরাট কোহালিও আউট হলেন মাত্র এক রানে। লোকেশ রাহুলকে (১) ফেরান হেনরি। দীনেশ কার্তিক ২৫ বলে ৬ রানে আউট হন। ঋষভ পন্থ এবং হার্দিক পাণ্ড্য ধীরে ধীরে চাপ কাটিয়ে উঠছিলেন। স্যান্টনারের বলে মারতে গিয়ে আউট হন পন্থ (৩২)। পন্থের আউট হওয়ার ধরন দেখে সাজঘরে প্রচণ্ড রেগে যান কোহালি। পন্থের মতো একই ভাবে উইকেট ছুড়ে দেন পাণ্ড্য (৩১)। তার পরে ভারতকে ম্যাচে ফেরাচ্ছিলেন ধোনি ও জাডেজা। জাডেজা নিজেকে ছাপিয়ে যান। ধোনি ও জাডেজা ১১৬ রানের পার্টনারশিপ করেন। তবুও তাঁরা পারলেন না ভারতকে জেতাতে।

 

জি-নিউজ লিখেছে,

জাদেজা-ধোনির লড়াই কাজে এল না, ফাইনালে নিউ জিল্যান্ড ধোনিকে দুরন্ত রান আউট করে নিউ জিল্যান্ডকে কার্যত বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে তুললেন মার্টিন গাপ্টিল

বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে কিউইদের ২৪০ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে ভারতের গর্বের ব্যাটিং লাইনআপ। রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলিরা শুরুতেই আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। এমন। কিন্তু সেমিফাইনালেই ফ্লপ বিরাট, রোহিতের ব্যাট। শুরুতেই আউট হয়ে ফেরেন বিশ্বকাপের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা। এক রানে আউট হন হিটম্যান। এরপর বিরাটও ১ রানে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন। শেষবার রোহিত ও বিরাট দুজনেই এক অঙ্কের ঘরে আউট হয়েছিলেন ২০১৭ সালে। ইংল্যান্ডেই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সেই ম্যাচে পর্যুদস্ত হয়েছিল ভারত। দু বছর পর ফের দুই ব্যাটসম্যান আউট হলেন এক অঙ্কের ঘরে।

২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনালে বিরাট করেছিলেন ৫ রান। শূন্য রানে ফিরেছিলেন রোহিত শর্মা। এরপরই শুরু হয় ভারতের ব্যাটিং বিপর্যয়। বলার মতো রান করেন ঋষভ পন্থ ও হার্দিক পাণ্ডিয়া। ৩২ রানে আউট হয়ে ফিরে যান পন্থ। এদিকে ৬২ বলে ৩২ রান করেন হার্দিক পাণ্ডিয়া। তবে লড়াই চালিয়ে যান ধোনি-জাদেজা জুটি। দুরন্ত ৭৭ রান করলেন রবীন্দ্র জাদেজা। সঙ্গে মহেন্দ্র সিং ধোনির ৫০। ধোনিকে দুরন্ত রান আউট করে নিউ জিল্যান্ডকে কার্যত বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে তুললেন মার্টিন গাপ্টিল। ২২১ রানে অল আউট ভারত। ১৮ রানে ভারতকে হারিয়ে বিশ্বকাপের ফাইনালে চলে গেল।

ম্যাঞ্চেস্টারে বৃষ্টি বিঘ্নিত দু'দিনের সেমি-ফাইনাল! মঙ্গলবারের ম্যাচ গড়ায় বুধবার। মঙ্গলবার টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় নিউ জিল্যান্ড। গতকাল বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হওয়ার সময় স্কোরবোর্ডে ৪৬.১ ওভার শেষে কিউইদের রান ছিল ২১১/৫। বুধবার রিজার্ভ ডে-তে এখান থেকেই শুরু হয় খেলা। শেষপর্যন্ত ৮ উইকেট হারিয়ে ২৩৯ রান করে নিউ জিল্যান্ড। ভারতের সামনে টার্গেট দাঁড়ায় ২৪০ রানের।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT