Main Menu

চ্যাম্পিয়ন নয়, ‘সা রে গা মা পা’তে তৃতীয় হলেন নোবেল!

কলকাতার সঙ্গীত বিষয়ক জনপ্রিয় রিয়্যালিটি শো ‘সারেগামাপা’। পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি বাংলাদেশেও এই বছর অনুষ্ঠানটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। আর এর পেছনের কাণ্ডারি মাইনুল আহসান নোবেল।

ঢাকার এই তরুণ এবারের সারেগামাপা’র মঞ্চ কাঁপিয়েছেন দুর্দান্ত সব পরিবেশনায়। বিচারকদের প্রশংসার কারণে অনেকেই ভেবেছিলেন সেরার মুকুট জিতছেন তিনি। সেই নোবেল সারেগামাপা’র চ্যাম্পিয়ন হতে পারেননি। অনুষ্ঠানটির গ্র্যান্ড ফিনালেতে নোবেলকে তৃতীয় স্থানে রাখা হয়েছে।

শনিবার কলকাতার একটি কনভেনশন সেন্টারে ‘সারেগামাপা’র চূড়ান্ত পর্ব ধারণ করা হয়। যা জি বাংলায় প্রচার হবে আগামী ২৮ জুলাই। তাই আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল প্রকাশ করেনি চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। তবে তার আগেই বাংলাদেশি গণমাধ্যমের কাছে এসেছে এর পুরস্কার বিজয়ীদের তালিকা ও পুরস্কার বিতরণের ছবি।

সেখানে দেখা যায়, এতে প্রথম হয়েছেন অঙ্কিতা। যৌথভাবে ১ম রানারআপ গৌরব ও স্নিগ্ধজিৎ এবং ২য় রানারআপ হয়েছেন প্রীতম ও মাঈনুল আহসান নোবেল!

বিশ্বস্ত সূত্রে আরও জানা যায়, বিচারকদের রায়ে এই ফল হলেও দর্শক ভোটে সেরা নোবেল। তিনি ‘মোস্ট ভিউয়ার চয়েস’-এ বিজয়ী হয়েছেন।

এদিকে, চ্যাম্পিয়ন না হতে পারলেও নোবেল যে লম্বা রেসের ঘোড়া, তা আগেই মেনে নিয়েছেন ‘সা রে গা মা পা’র বিচারক শান্তনু মৈত্রের মতো সুরকারও। ইতিমধ্যে সা রে গা মা পা’র মঞ্চে শান্তনুর সুরে গেয়ে ফেলেছেন মৌলিক গান। গেয়েছেন অনুপমের সুরে ‘ভিঞ্চি দা’এর মতো সিনেমাতেও।

তবে নোবেলকে চ্যাম্পিয়ন না করায় তার ভক্তরা হতাশ। শুধু তাই-ই নয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনাও করছেন তারা। প্রিয় গায়কের মাথায় সেরার মুকুট দেখতে না পেরে প্রতিযোগিতাটির স্বচ্ছতা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই।

প্রসঙ্গত, এবারের সারেগামাপা’য় বাংলাদেশ থেকে বেশ কয়েকজন প্রতিযোগী অংশ নিয়েছিলেন। তাদের মধ্যে আছেন নোবেল, অবন্তী সিঁথি, মন্টি সিনহা, আতিয়া আনিছা, মেজবাহ বাপ্পী প্রমুখ। তবে সবার চেয়ে আলোচনায় ও জনপ্রিয়তায় ছিলেন নোবেল। অনুষ্ঠানে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন শ্রীকান্ত আচার্য, শান্তনু মৈত্র, কৌশিকী চক্রবর্তী, মোনালি ঠাকুর ও পণ্ডিত তন্ময় বোস।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT