Main Menu

গুজরাটে মুসলিম গনহত্যার জন্য মোদীকে দায়ী করা সেই পুলিশ কর্মকর্তার যাবজ্জীবন

 


২০০২ সালে ভারতের গুজরাটে মুসলিমদের ওপর ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও গুজরাট রাজ্যের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূমিকা ফাঁস করা এক শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তাকে যাবজ্জীবন দণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সঞ্জিব ভাট নামে ওই কর্মকর্তাকে ৩০ বছর পুরোনো এক খুনের মামলায় এই সাজা দেওয়া হয়েছে। খবর বিবিসি’র।

সঞ্জিব ভাট গুজরাট দাঙ্গার পর অভিযোগ করেছিলেন, তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী মোদী সরকারী কর্মকর্তাদের বলেছিলেন, মুসলিমদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেওয়ার সুযোগ দিতে হবে হিন্দুদের।

ওই সন্ত্রাসী হামলায় সহস্রাধিক মুসলিম শহীদ হন।

ওই ঘটনার সময় গুজরাট পুলিশের তদন্ত ব্যুরোর জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ছিলেন সঞ্জিব ভাট। তার বক্তব্য, ওই পদে থাকায় দাঙ্গার আগে ও দাঙ্গার সময় প্রচুর তথ্য ও গোয়েন্দা তথ্য দেখার সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। তখন জ্যেষ্ঠ প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের ভূমিকাও তিনি জানতে পেরেছিলেন।

২০১১ সালে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় সঞ্জিব ভাটকে। ২০১৫ সালে তাকে পুরোপুরি বরখাস্ত করা হয়।

২০১১ সালে অবশ্য ভারতের সুপ্রিম কোর্ট ওই দাঙ্গায় সস্পৃক্ততার অভিযোগ থেকে মোদীকে রেহাই দেয়।

সঞ্জিব ভাট যেই মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত হয়েছেন সেটি ১৯৮৯ সালের একটি মামলা। পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে তিনি তখন ওই দাঙ্গায় সস্পৃক্ত থাকার সন্দেহে ১৫০ জনেরও বেশি ব্যক্তিকে আটক করেছিলেন। কিন্তু এদের একজন মুক্তি পাওয়ার পর হাসপাতালে মারা যান। ওই ব্যক্তির পরিবার দাবি করেন, ভাট ও অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্যাতনের কারণেই তিনি মারা যান।

সঞ্জিব ভাটের বিরুদ্ধে যাবজ্জীবনের আদেশ দিয়েছে গুজরাট রাজ্যের একটি নিন্ম আদালত।

তিনি এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন।

সঞ্জিব ভাট ও তার পরিবার অবশ্য বহুদিন ধরে দাবি করছেন যে, প্রধানমন্ত্রী মোদীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলার কারণেই সরকার তাকে টার্গেট করেছে। রাজ্য কর্তৃপক্ষ আবার বলছে, মোদীকে ফাঁসাতে প্রমাণ বিকৃত করেছিলেন সঞ্জিব ভাট।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT