Main Menu

যে আসনে বিগত ৪৬ বছরেও বিজয় দেখেনি আ’লীগ

আগামী ২৪ জুন অনুষ্ঠিতব্য বগুড়া-৬(সদর) আসনের উপ-নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। বিএনপির ঘাঁটি এ আসনে বিএনপি, আ’লীগ, জাতীয় পার্টিসহ ৭ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। অতীতের সকল রেকর্ড অনুযায়ী বিএনপির পাল্লাই ভারী। শুধু তাই নয় ধানের শীষ বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা হলেন, বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক ও বগুড়া-৫ আসনের সাবেক এমপি গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ (ধানের শীষ), জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এসএম টি জামান নিকেতা (নৌকা), জাতীয় পার্টির জেলা সাধারন সম্পাদক সাবেক এমপি নুরুল ইসলাম ওমর (লাঙ্গল), বাংলাদেশ কংগ্রেসের জেলা আহবায়ক ড. মনসুর রহমান (ডাব), বাংলাদেশ মুসলিম লীগের মুফতি মাওলানা রফিকুল ইসলাম (হারিকেন), স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ কবির আহম্মেদ মিঠু (ট্রাক) ও মালয়েশিয়া প্রবাসী মিনহাজ মন্ডল (আপেল)। এদের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী মিঠু গত বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। তবে তার নাম ও প্রতিক থাকবেই।

নির্বাচন কমিশন সূত্র জানায়, বগুড়া পৌরসভার ২১টি ওয়ার্ড এর মধ্যে ২০টি ওয়ার্ড (একটি ওয়ার্ড বগুড়া-৭ আসনের শাজাহানপুর উপজেলার আওতাভূক্ত) এবং সদর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন নিয়ে বগুড়া -৬ (সদর) আসন। এই আসনে বর্তমানে ভোটার ৩ লাখ ৮৭ হাজার ৪৫৮জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৯১ হাজার ৬৬৮ জন ও মহিলা ভোটার ১ লাখ ৯৫ হাজার ৭৯০ জন। তারা ২৪ জুন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ১৪১টি কেন্দ্রের ৯৬৫টি কক্ষে ইভিএমে ভোট দিবেন।

বিএনপির ঘাঁটিতে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট একক প্রার্থী দেওয়ায় জোটের নেতাকর্মীরা স্বস্তিতে রয়েছে। কিন্তু আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটে সমঝোতা হয়নি। তাই আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টি পৃথকভাবে প্রার্থী দিয়েছে। এর ফলে মহাজোটে নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে হতাশা আরো বেশী।

বিগত দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদের সাধারন নির্বাচনে বগুড়া-৬(সদর) আসনে মহাজোটের পক্ষে মনোনয়ন দেয়া হয়েছিল জাতীয় পার্টিকে। এর মধ্যে দশম নির্বাচনে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায় জাতীয় পার্টি থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন জেলা জাপার সাধারন সম্পাদক নূরুল ইসলাম ওমর। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও মহাজোটের পক্ষে তাকে মনোনয়ন দেয়া হলে তিনি বিপুল ভোটে পরাজিত হন বিএনপি প্রার্থী ও দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে। কিন্তু আসন্ন উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টিকে আওয়ামী লীগ ছাড় না দেয়ায় দুই দলের আলাদা প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।

সর্বশেষ ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৭ হাজার এবং মহাজোট প্রার্থী নূরুল ইসলাম ওমর পেয়েছেন ৪০ হাজার ভোট।

এ আসনের বিগত কয়েকটি নির্বাচনের ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, বিএনপির একক ভোট অন্য দলের তুলনায় কয়েকগুণ বেশী। এরপর আওয়ামী লীগ ও জামায়াতের ভোট কাছাকাছি এবং জাতীয় পার্টির ভোট জামানত বাজেয়াপ্ত হওয়ার মতো। ১৯৯১ সালের ৫ম সংসদ নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী অ্যাডভোকেট (মরহুম) মজিবর রহমান, ১৯৯৬ সালের ১২জুন ৬ষ্ঠ সংসদ নির্বাচনে চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, ২০০১ সালের ১ অক্টোবর ৮ম সংসদ নির্বাচনে বেগম খালেদা জিয়া ও ২০০৮ সালের ৯ম সংসদ নির্বাচনেও বেগম খালেদা জিয়া বিপুল ভোটের ব্যবধানে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এমনিভাবে বিগত প্রতিটি উপনির্বাচনেও ধানের শীষ বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছে। ১৯৭৩ সালের পর অর্থ্যাৎ বিগত ৪৬ বছরে বগুড়া সদরে আওয়ামী লীগ বিজয়ী হয়নি।

এদিকে ইভিএমে ভোট দিতে ভোটারদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে। এটাকে নির্বাচন কমিশন স্বচ্ছতার সাথে সহজ পদ্ধতি বললেও ভোটারদের ফলাফল নিয়ে সন্দেহ দূর হচ্ছেনা। ধানের শীষের ভোটারদের সন্দেহ, ভোট ধানের শীষে দিলেও তা যথাযথভাবে গণনা হবে না। এখানে ডিজিটাল কারচুরি হতে পারে। এ কারনে বিএনপি নেতারা হুঁশিয়ারী দিয়ে বলেছেন, যদি কারচুপি করা হয় তবে কেন্দ্রে কেন্দ্রে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।

এ ব্যাপারে বিএনপি প্রার্থী গোলাম মোঃ সিরাজ বলেছেন, সরকার ইভিএম পদ্ধতি জায়েজ করতে ভোট সুষ্ঠু করবে বলে আশা করছি। কারণ একটি সিট তাদের দরকার নেই।

নির্বাচনে বিএনপির নির্বাচনী প্রধান ইস্যু দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের দেশে প্রত্যাবর্তন। নির্বাচিত হলে সংসদে গিয়ে উচ্চ কণ্ঠে গোলাম মোঃ সিরাজ এ দুটি দাবীর পাশাপাশি বগুড়ার উন্নয়নের প্রতিশ্রতি দিয়েছেন।

অপরদিকে আওয়ামী লীগের প্রধান ইস্যু বগুড়ার উন্নয়ন। দলের প্রার্থী টি জামান নিকেতা বলেছেন, বগুড়ার উন্নয়নের জন্য নৌকা মার্কা বিজয়ী করতে হবে।

রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্বে নিয়োজিত জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুব আলম শাহ বলেছেন, ইভিএমে স্বচ্ছতার সাথে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠত হবে। এখানে কারচুপির কোন সুযোগ নেই।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT