Main Menu

সিডনিতে পড়াশোনার অভিজ্ঞতা বর্ণনা করলেন বাংলাদেশী  দুই শিক্ষার্থী

সিডনিতে সম্প্রতি ৩০ জন শিক্ষার্থী’র (ছাত্র প্রতিনিধি) মধ্যে দুইজন নির্বাচিত বাংলাদেশী  শিক্ষার্থী ছিলেন যারা সিডনিতে বিদ্যমান আকর্ষণীয় শিক্ষাজীবনের বর্ণনা তুলে ধরেন। 
 
ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি সিডনি (ইউটিএস)-এ অধ্যয়ন করার জন্য এর অগ্রবর্তী কলেজ, ইউটিএস ইনসার্চ দ্বারা পরিচালিত “মাই ইউনিলাইফ” নামে সমধিক পরিচিত এই প্রোগ্রামটিতে সিডনিতে শিক্ষার্থীদের যাপিত অনন্য জীবনধারা ও অভিজ্ঞতা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। মূলত চট্টগ্রাম ও নারায়ণগঞ্জ এর বাসিন্দা দুইজন বাংলাদেশী ছাত্র প্রতিনিধি এই অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। 
ইউটিএস ইনসার্চ এর হেড অব মার্কেটিং, বেনসিস লেস্টার জানান, শিক্ষার্থীরা মূল্যবান অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন যা অন্যদের সাহায্য করবে। 
 
লাস্টার বলেন," বাংলাদেশের ছাত্ররা হয়তো কোনও ভিনদেশী শহরে তাদের দৈনন্দিন জীবনযাপন কেমন হতে পারে তা না জেনেই বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করার স্বপ্ন দেখে”। 
 
"আমার ইউনিলিফাইফ প্রোগ্রাম শিক্ষার্থীদের বর্ণনায় সিডনিতে পড়াশোনার বাস্তব অভিজ্ঞতা সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের এবং পিতামাতাদের জানার সুযোগ দেয়। তারা বর্তমান শিক্ষার্থীদের ইউটিএস-তে পড়াশুনা সম্পর্কে প্রশ্ন করতে পারে, যেমনঃ তারা প্রতিদিন কিভাবে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে  যায়, তারা কি সহজে বাংলাদেশী খাবার খুঁজে পায় কি না বা নতুন শহরে তারা কীভাবে বন্ধু তৈরি করতে পারে।"
 
 "আমাদের ছাত্র প্রতিনিধিরা তাদের প্রতিনিধির ভূমিকা পালনকালে নেতৃত্ব, নেটওয়ার্কিং এবং যোগাযোগ দক্ষতা বৃদ্ধির সুযোগ পায়। বিদেশে পড়তে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের সহায়তা করার জন্য তাদের এই প্রোগ্রামে যোগদান করা একটি মূল কারণ,” তিনি বলেন।
 
নারায়ণগঞ্জের আশফাক জানান, তিনি সিডনির নৈসর্গিক প্রাকৃতিক পরিবেশ পছন্দ করেন যেখানে সমুদ্র সৈকত আর বনরাজি একাকার হয়ে আছে। 
 
"একই সপ্তাহান্তে, আমি সমুদ্র সৈকত ভ্রমন এবং সবুজ প্রকৃতি দর্শনে যেতে পারি। সিডনির মনোমুগ্ধকর প্রাকৃতিক সৌন্দর্যময় স্থানগুলি আন্তর্জাতিক ছাত্রদের জন্য উপভোগ্য।  আমি প্রিয় ভ্রমনপীঠ গুলির ছবি  ইনষ্টাগ্রামে শেয়ার করতে ভালোবাসি," আশফাক বলেন।  
 
আশফাক বলেন যে বিদেশে শিক্ষালাভ করায় তাঁর জ্ঞান অর্জনে দক্ষতার উন্নতি হয়েছে।  
 
"আমি সিডনি আসার পর থেকে (লক্ষ্য অর্জনে) নিরন্তর প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে শিখেছি। এসাইনমেন্ট এর কাজ করতে গিয়ে শিখেছি আমি সব সময় কাঙ্ক্ষিত নম্বর নাও পাতে পারি, তাই একাডেমিক লক্ষ্য পূরণে আমাকে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।"
 
চট্টগ্রাম থেকে আসিফ বলেন, সিডনিতে বাস করা তাঁর জন্য খুব সহজ কেননা তিনি তাঁর ভাই এর সাথে থাকেন। 
"ভাইয়ের সাথে বসবাস করায় সিডনিতে আমার শিক্ষাজীবন আরম্ভ করা সহজ হয়ে গেছে।  যখন আমি কোন সমস্যায় পড়ি বা পড়াশোনার বিষয়ে কোন সাহায্য লাগে তখন তিনি সব সময় আমার প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন।“ আসিফ বলেন। 
 
মিস লেস্টার বলেন, বাংলাদেশের ২জন সহ সর্বমোট ৩০ জনেরও বেশী শিক্ষার্থী এই স্বেচ্ছাসেবক প্রোগ্রামের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। আবেদনকারীদের শিক্ষা মানের অগ্রগতি, পাঠ বহির্ভূত শিক্ষা কার্যক্রমে আগ্রহ এবং আন্তর্জাতিক ছাত্র হিসেবে তাদের অভিজ্ঞতা বর্ণনায় উত্সাহ স্পষ্ট।
 
"আমরা আমাদের ছাত্রদের জন্য  এবং তারা যা অর্জন করতে যাচ্ছে তাঁর জন্য গর্বিত এবং আমি এটা ভেবে আনন্দিত যে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা মাই ইউনিলাইফ  প্রোগ্রামের মাধ্যমে তাদের বর্ণনায় জীবনের গল্পগুলি প্রকাশিত দেখতে পাবে "।
 
বাংলাদেশী মাই ইউনিলাইফ  প্রোগ্রামের ছাত্র প্রতিনিধিরা ভবিষ্যৎ শিক্ষার্থীদের সাথে UTS এ পড়া এবং সিডনিতে বসবাস বিষয়ে ইনস্টাগ্রামে যোগাযোগ করে থাকেন। 
 
আপনি ইনস্টাগ্রামে আশফাক এবং আসিফকে যথাক্রমে @UTSInsearch_Ashfaq এবং @UTSInsearch_Ashif খোঁজ করতে পারেন অথবা মাই ইউনিলাইফ  এ যান: uts.insearch.edu.au/myunilife/

ইউটিএস এবং ইউটিএস ইনসার্চ সম্পর্কিত তথ্য
সিডনির প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত ইউনিভারসিটি অফ টেকনোলজি সিডনি অস্ট্রেলিয়ার একটি শীর্ষস্থানীয় প্রথিতযশা এবং সৃষ্টিশীল  উদীয়মান বিশ্ববিদ্যালয়। 
অনেক স্নাতক শ্রেনীর বা আন্ডারগ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থী ইউনিভারসিটি অফ টেকনোলজি সিডনিতে পড়ার লক্ষ্যে ইউটিএস ইনসার্চে ভর্তি হয়ে প্রয়োজনানুযায়ী ইংরেজীতে তাদের সক্ষমতা বাড়ায়, জ্ঞান, দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতার বিকাশ ঘটিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে এমনকি পরবর্তী উচ্চতর শিক্ষায় সাফল্য লাভ করে। 
শিক্ষার্থীরা ইউটিএস ইনসার্চের অনেকগুলি বিষয় থেকে তাদের পছন্দের বিষয় বেছে নিতে পারে এবং তাদের নির্বাচিত কোর্স এবং গ্রেডের উপর নির্ভর করে ইউ টি এস এ তাদের শিক্ষাক্রম দ্বিতীয় বর্ষ থেকে শুরু করতে পারে।   ইউটিএস-এ আর্কিটেকচার, বিজনেস, কমিউনিকেশন্স, ডিজাইন, ইঞ্জিনিয়ারিং, ইনফরমেশন টেকনোলজি  এবং বিজ্ঞান বিষয়ক কোর্সগুলিতে ভর্তি হবার সুযোগ রয়েছে।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT