Main Menu

অস্ট্রেলিয়ান ফেডারেল ইলেকশন ২০১৯ - তৃতীয় এবং চুড়ান্ত ডিবেট

মোঃ শফিকুল আলমঃ কোয়ালিশন প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন এবং বিরোধী দলীয় লীডার এবং লেবার লীডার বিল শর্টেনের মধ্যে চুডা়ান্ত ডিবেট অনুষ্ঠিত হয়। অধিকাংশের মতে স্পষ্টত: এই ডিবেটে কেউ বিজয়ী হননি। কিন্তু দৈনিক দি সিডনি মর্নিং হেরাল্ড মনে করে ধারাবাহিকভাবে তৃতীয় ডিবেটটিতেও বিল শর্টেন বিজয়ী হয়েছেন; কিন্তু তৃতীয় ডিবেটে হেরাল্ডের মতে স্কট মরিসন প্রথম দুইটির থেকে ভালো পার্ফর্মেন্স দেখিয়েছেন।

নেগেটিভ গিয়ারিং এবং ৩২.১ বিলিয়ন ডলার প্রশ্নে অনৈক্য এবং বিতর্ক অনেকটা পিক-এ পৌঁছেছিলো। প্রধানমন্ত্রী এস্টাবলিস্ড হাউজ (পুরনো বাড়ী) এর ক্ষেত্রে নেগেটিভ গিয়ারিং পলিসি বহাল রেখে ৩২.১ বিলিয়ন ডলার ট্যাক্স ডিডাকসনের সুযোগ রেখে যারা হাউজিং খাতে অলরেডি প্রতিষ্ঠিত বিনিয়োগকারী তাদেরকেই প্রনোদিত করে একদিকে ট্যাক্স রেভিনিউ হারাবেন অন্যদিকে ইয়াং ইনভেস্টরদেরকে হাউজিং মার্কেটে ঢোকার পথ রুদ্ধ করে রাখবেন এই প্রশ্নের সরাসরি জবাব প্রধানমন্ত্রী না দিয়ে উল্টো বিরোধী নেতাকে প্রশ্ন রেখেছেন যে নেগেটিভ গিয়ারিং উইথড্র করলে হাউজিং মার্কেট নিম্নগামী হবে কি-না।

বিরোধী নেতা বিল সরাসরি উত্তর না দিয়ে তিনি হাউজিং মার্কেট বিশেষজ্ঞদের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছেন বিশেষজ্ঞদের মতে হাউজিং মার্কেট নিম্নগামী হবেনা কারন নতুন বাড়ীর ক্ষেত্রে নেগেটিভ গিয়ারিং বজায় থাকবে। অন্যদিকে ইয়াং বিনিয়োগকারীরা হাউজিং মার্কেটে প্রবেশের সুযোগ পাবে। এস্টাবলিস্ড হাউজের মালিকরা রেন্ট মার্কেটে সুবিধা পাবে। অপর দিকে রাষ্ট্র ৩২.১ বিলিয়ন ডলার বর্ধিত ট্যাক্স রিভিনিউ পাবে।

মরিসন টেকনিক্যাললি বিলকে প্রশ্ন করলেন নেগেটিভ গিয়ারিং উইথড্র করলে হাউজিং মার্কেট নিম্নগামী হবেনা এই মর্মে বিরোধী নেতা কি গ্যারান্টি দিচ্ছেন? বিল এবারেও সরাসরি উত্তর না দিয়ে বললেন এটি প্রধানমন্ত্রী’র স্কেয়ার ক্যাম্পেইন এবং তরুন বিনিয়োগকারীদের হাউজিং মার্কেটে ঢুকতে না দেয়ার পলিসি। বিল বলেন, “আমাদের পলিসি আপনাদের পছন্দ না-ও হতে পারে কিন্তু জনগনকে ভয় দেখিয়ে নির্বাচনে জয়লাভের পলিসি গ্রহন উচিত নয়।”

৫০ মিনিট দীর্ঘ ডিবেটে বিল সরকারের পেছনের অনেক বিষয়ে প্রশ্ন করলেন এবং বললেন এবারে সামনে যাওয়া যাক্। বিল বললেন যদিও মরিসনের নেগেটিভ গিয়ারিং সংক্রান্ত বিষয়ে সন্তোষজনক উত্তর মেলেনি। বিল সরকারের যতো ব্যর্থতার কথা বলছিলেন মরিসন ততোটাই তাঁদের সফলতার প্রশ্নে দৃঢ় ছিলেন। বিল দৃঢ়ভাবে বললেন নিশ্চয়ই জনগন আগামী তিন বছর মরিসন সরকারের ব্যর্থতা দেখতে চাইবেনা।

বিল এবারে জিজ্ঞেস করলেন ক্লাইমেট চেইন্জ পলিসিজ, চাইল্ড কেয়ার, নিউ হোম বাইয়ারস ইত্যাদি ক্ষেত্রে সরকারের গত ছয় বছরের ব্যর্থতা থাকা সত্বেও জনগন কি আগামী তিন বছরের জন্যও কোয়ালিশনকে ক্ষমতায় দেখতে চায় কি-না। 

প্রতিটা ক্ষেত্রে অবশ্য মরিসন বিষদে না গিয়ে তাঁর সরকারের সফলতায় দৃঢ় ছিলেন। উত্তর না পেয়ে বিলকে অনেকটা উষ্মা প্রকাশ করতে দেখা যায়। মরিসন তাঁর কোম্পানী ট্যাক্স-কাট, ইনডিভিজ্যুয়াল ট্যাক্স-কাট ইত্যাদি পলিসির বার বার উল্লেখ করছিলেন। এবং লেবার লীডারের ট্যাক্স রেভিনিউ বৃদ্ধির সমালোচনা করছিলেন।

মডারেটর প্রধানমন্ত্রীকে তাঁর পক্ষ থেকে বিরোধী নেতাকে প্রধান দু’টি প্রশ্ন রাখতে বলা হয়। এক্ষেত্রে বারবারই সুপার এনুয়েশন এবং নেগেটিভ গিয়ারিং এর ওপর প্রশ্ন রাখছিলেন।

লেবারের সুপার এনুয়েশন ট্যাক্স সম্পর্কে লিবারেল স্কেয়ার ক্যাম্পেইন করছে বলে বিল মনে করেন। লেবারের সুপার এনুয়েশন পলিসিতে শুধু কিছু পরিবর্তন আনায়ন করা হয়েছে। শুধুমাত্র হাই ইনকাম আর্নারদের ক্ষেত্রে পার্সোনাল কন্ট্রিবিউশন ক্যাপ ২৫০,০০০ ডলারের পরিবর্তে ২০০,০০০ ডলার এর ওপর কনসেশনাল ট্যাক্স রেট রাখা হয়েছে। অর্থাৎ, এখন যারা ব্যক্তিগতভাবে সুপার এনুয়েশন ফান্ডে ২৫০,০০০ ডলার রাখবে তারা ৩০% এর পরিবর্তে ১৫% হারে অর্থাৎ কনসেশনাল রেটে ট্যাক্স প্রদান করেন। লেবারের পরিবর্তনে এখন থেকে এই কনসেশন রেট (১৫%) শুধুমাত্র ২০০,০০০ ডলারের ওপর কার্যকর হবে। এতে বছরে ৭৫০ মিলিয়ন ডলার সরকারের রেভিনিউ সেইভড্ হবে। বিলের মতে, হাই ইনকাম গ্রুপ তাদের অবসর জীবন কম্ফোর্টেবলি নিজেরাই ফান্ড করতে সক্ষম। অপর দিকে লো-ইনকাম গ্রুপের জন্য এম্প্লয়ার্স সুপার গ্যারান্টি (কর্মচারী ১০০ ডলার আয় করলে তার বিপরীতে কর্মচারীর পেনশন ফান্ডিং করতে এম্প্লয়ার এখন ৯.৫০ ডলার কর্মচারীর সুপার ফান্ডে বাধ্যতামূলক জমা রাখে) ৯.৫% এর পরিবর্তে ১২% অনতি বিলম্বে কার্যকর করার পক্ষে।

শর্টেনের ক্লাইমেট চেইন্জ পলিসি ২০৩০ সালের মধ্যে কার্বন এমিসন পেরিস ডিকলারেশনের সাথে কাঙ্খিত মাত্রায় অর্জিত না হলেও ২০৫০ সালের মধ্যে অর্জিত হবে বলে বিশেষজ্ঞগন মনে করেন। মরিসন প্রশ্ন রেখেছেন যে বিল শর্টেনের ক্লাইমেট চেন্জ পলিসি বাস্তবায়নের কষ্ট বা খরচ কিভাবে মেটানো হবে সে ব্যাপারে তাঁর (মরিসন) সন্দেহ রয়েছে। বিল অবশ্য আগামীকাল তাঁর ক্লাইমেট চেন্জ পলিসির কষ্টিং এবং ফান্ডিং এর ডিটেইলস্ প্রকাশ করবেন বলে জানান। বিল ক্লাইমেট চেইন্জ পলিসি ফান্ডিংকে কষ্ট মনে করেননা। তিনি এটাকে বিনিয়োগ মনে করেন। বিল শর্টেন ক্লাইমেট চেন্জ পলিসি নিয়ে মরিসনের আর্গুমেন্টকে ‘charlatan’s argument’ বলে মরিসনকে কটাক্ষ করেছেন। Charlatan’s argument বলতে যে যে বিষয় ভালো জানেননা সে বিষয়ে পান্ডিত্ব জাহির করে বিতর্ক করা বোঝায়।

ইলেকশন ক্যাম্পেইন চলাকালীন ক্লাইমেট চেইন্জ কাউন্সিল এক প্রতিবেদনে বলেছে ক্লাইমেট চেন্জ পলিসি গ্রহন না করলে ২০৩০ সালের মধ্যে চরম আবহাওয়ার কারনে প্রোপার্টি ভ্যাল্যু ৫৭১ বিলিয়ন হ্রাস পাবে। বন্যার কারনে কোস্টাল এরিয়ার ঘর-বাড়ী ডুবে যাবে। ইনসিউরেন্স পলিসি কষ্ট সাধ্যের বাইরে চলে যাবে। চরম আবহাওয়ার কারনে ২০৩০ এর মধ্যে শ্রমিকের উৎপাদন ক্ষমতা কমে যাবে ১৯ বিলিয়ন ডলার এবং ২০৫০ এর মধ্যে উৎপাদন ক্ষমতা হ্রাসের মূল্য হবে ২১১ বিলিয়ন।

কোয়ালিশন মনে করে বিল শর্টেনের ক্লাইমেট চেইন্জ পলিসির (২০৩০ সালের মধ্যে কার্বন রিডাকশন ৪৫%) ব্যয় বাড়বে ৫৬৫ বিলিয়ন ডলার। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের হিসেব অনুযায়ী পলিসি এ্যাকশনে না গেলে যে ব্যয় বাড়বে তা’ বরং কয়েক গুন বেশি অর্থনীতিকে প্রভাবিত করবে। সে কারনে তাঁরা বিল শর্টেনের ক্লাইমেট চেন্জ পলিসি সমর্থন করেন।

মরিসন কষ্ট নিয়ে কথা বলেছেন যখন বিল বেনিফিট নিয়ে কথা বলেছেন। মরিসন বর্তমানকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন; অপর পক্ষে বিল সাসটেনেবল ইকোনোমির কথা বলেছেন।

বিল প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন রেখেছেন তাঁর (শর্টেনের) ক্যানসার ট্রিটমেন্টের ওপর এবং বেটার হসপিটাল ফেসিল্টিজ এর ওপর ২.৩ বিলিয়ন বরাদ্দ নিয়ে কোয়ালিশনের কি পলিসি রয়েছে। কোয়ালিশন বরং স্বাস্থ্য এবং শিক্ষা খাতে ব্যয় বরাদ্দ কমিয়ে চলছে।

বিল অর্থনীতির গতিশীলতায় মজুরী বৃদ্ধি, উইকএন্ডস্ পেনাল্টি রেট চালু করার কথা বলেছেন। কোয়ালিশন উইকএন্ডস্ পেনাল্টি রেট তুলে নিয়েছে। কোয়ালিশন মজুরী বৃদ্ধি না করে অর্থনীতিতে শ্লথ গতি সন্চালিত করেছে। পার্মানেন্ট ক্যাজুয়াল সিস্টেম ইন্ট্রডিউচ করে শ্রমিকদের অধিকার বন্চিত রাখছে। বিল বলেন লেবার সরকার এ সবগুলো পূণ:প্রবর্তন করবে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকগন মনে করেন জনগন দুই নেতার ডিবেট দেখেছে। কিন্তু তারা যে সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছে তার তেমন কোনো পরিবর্তন হবে বলে মনে হয়না।

অপর দিকে অস্ট্রেলিয়ার মিডিয়া মুগল (সারা বিশ্বরও বটে) নিউজ কর্পের স্বত্বাধিকারী রুপার্ট মুরডকের ডেইলি স্টার পত্রিকা বিল শর্টেনের মাকে নিয়ে একটি বিদ্রুপাত্মক স্টোরি তৈরী করেছে। রুপার্ট পুরো বিশ্বে কনজার্ভেটিভ রাজনীতিকে পৃষ্ঠপোষকতা করে থাকেন এবং অস্ট্রেলিয়াতে কনজার্ভেটিভ লিবারেল-ন্যাশনাল কোয়ালিশনকে পৃষ্ঠপোষকতা করে থাকেন। কিন্তু সেখানেও হিতে বিপরীত হয়েছে। এই স্টোরি একেবারেই বিল শর্টেনকে ব্যক্তিগতভাবে আক্রমন করেছে বলে সমালোচনার ঝড় বইছে। এমনকি আজ ডেইলি টেলিগ্রাফ স্টোরিটি ইতিবাচক ধারনা থেকে করা হয়েছে বলে সম্পাদকীয় প্রকাশ করেছে। এমনকি স্কট মরিসনও এই ব্যক্তিগত আক্রমনের সমালোচনা করে বিলের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছেন।

বিল মূলত: গত সোমবার এবিসি চ্যানেলের Q & A (Question And Answer) অনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের জবাবে তাঁর মা সেই সময়ে ফেমিলির ওপর দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে যে ব্যারিস্টারী পড়তে পারেননি এবং সেই সময় ১৯৫০ সালে ল’ ডিগ্রী অর্জনে যেহেতু স্কলারশীপ দেয়া হতোনা সে কারনে আর্থিক অবস্থার কথা চিন্তা করে ল’ পড়েননি সেকথা বলছিলেন। সে সময়ে শিক্ষা বিষয়ে স্কলারশীপ দেয়া হতো এবং তাঁর মা শিক্ষকতা ক্যারিয়ারে যোগদান করেছিলেন। যদিও তিনি পরবর্তীতে ১৯৮৫ সালে ব্যারিস্টার হয়ে সুপ্রিম কোর্টে এ্যাওয়ার্ডেড হয়েছিলেন। কিন্তু ডেইলি টেলিগ্রাফ বরং তাঁকে সেলিব্রেটি এবং সেলফিস হিসেবে পোট্রেট করেছে। তাদের ভাষ্যমতে বিল জন্মের পূর্বেই তাঁর মা শিক্ষকতা ক্যারিয়ারে প্রতিষ্ঠিত ছিলেন। ফেমিলির প্রতি দায়িত্বের কোনো ব্যাপার ছিলোনা। বিলের মা গত পাঁচ বছর পূর্বে মারা গেছেন। তাঁর মৃত মা সম্পর্কে নেগেটিভ স্টোরি লেখার বিপরীতে তাঁর অস্রুসজল বক্তৃতাও জনমনে বেশ দাগ কেটেছে।

নির্বাচনের এখনও অনেক সময় বাকী। ১৮ তারিখের পূর্ব পর্যন্ত যেহেতু ক্যাম্পেইন চলবে সুতরাং ডিসাইসিভ কোনো রায় দেয়ার এখনও সময় হয়নি। চুড়ান্ত ফলাফল জানতে ১৮ মে মিডনাইট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT