Main Menu

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত অস্ট্রেলিয়ান মেধাবীদের সম্মাননা অনুষ্ঠান

গত ১৩ই এপ্রিল, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত অস্ট্রেলিয়ান মেধাবী শিশুকিশোরদের  নিয়ে ওয়েস্টার্ন সিডনী পার্কসল্যান্ডের লিজার্ড লগ পার্কে অনুষ্ঠিত হলো, এক অনবদ্য আয়োজন, “ ট্যালেন্ট ২০১৯”।এই অনুষ্ঠানে ২২ জন মেধাবী শিশুকিশোর ও তাদের পরিবারবর্গঅংশগ্রহণ করে। নিউ সাউথ ওয়েলসে অপারচুনিটি ক্লাস এবং সেলেক্টিভ স্কুলে সুযোগ পাওয়ার আনন্দ এবং সাফল্য পালন করাই ছিল এর মূল লক্ষ্য। বাংলাদেশী বংশোদভূত এইসব ক্ষুদে অস্ট্রেলিয়ানদের এবং আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে বন্ধুত্ব এবং সহমর্মতার সাথে বেড়ে ওঠার প্রয়াসে এই সুচনা।   

নয়জন অভিভাবকদের দেড়মাসের চেষ্টায়, একাধিক সেভেন ইলেভেন স্টোরের স্বত্তাধিকারি জনাব অ্যারন রিয়াজ এবং এ ও জেড প্রিন্ট অ্যান্ড গ্রাফিক্সের শাহাবুদ্দিন আহামেদের সহযোগিতায় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

সকাল ১১টা ৪৫ মিনিটে ফারুক আহমেদের কুরআন তেলোয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। তারপর একেএকে প্রতিটি শিশুকিশোর তাদের ছাত্রজীবনের আনন্দ বেদনা আর প্রাপ্তির কথা নিজভাষায় তুলে ধরে। অনেকে আগে থেকে প্রস্তুতি নিয়ে আসে, আবার অনেকেই তাৎক্ষনিকভাবেই সাবলিল ভাষায় বিগত বছর-মাসের অধ্যয়ন আর পরীক্ষার প্রস্তুতির গল্প বর্ণনা করে। অভিভাবকরাও মঞ্চে এসে তাদের ত্যাগ, পরিশ্রম এবং গর্বভরা আবেগে আনন্দের কথা বলেন।  

মধ্যাহ্নভোজের পর আয়োজকেরা সন্তানদের সাফল্যে এবং সর্বাপরি পরিবারে মায়েদের ভুমিকার ব্যাপারে আলোকপাত করে প্রতিটি মা-কেই নিজসন্তানের মাধ্যমে এবং এ ও জেড-এর সৌজন্যে উপহার এবং সুভেনির প্রদান করেন। এরপরই অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ড. নাহিদ সায়মাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। উল্লেখ্য ড. নাহিদ সায়মার প্রথম সন্তান ড. নাভান রহমান একসময় বল্কহ্যাম হিলস হাই স্কুলের ছাত্র ছিলেন এবং পরে ইউনিভার্সিটি অব নিউ সাউথ ওয়েলসের স্কুল অব মেডিসিন থেকে উত্তির্ন হয়ে বর্তমানে কনকর্ড হাসপাতালে কর্মরত ডাক্তার। উনার দ্বিতীয় সন্তান শায়ান রহমান-ও বল্কহ্যাম হিলস হাই স্কুলে সাফল্যের সাথে এইচ এসসি পাশ করে বর্তমানে ইউনিভার্সিটি অব তাসমানিয়াতে মেডিসিনে অধ্যয়নরত। ড. সায়মা সন্তানদের বেড়ে ওঠার গল্প দিয়ে উপস্হিত অভিভাবকদের প্রেরনা জোগান। “লিভিং বাই এক্জাম্পল” এই কথাটিও বারেবারে শোনা যাচ্ছিল। তাঁর হাত দিয়ে ২২জন শিশুকিশোরসহ তাদের সহদরদেরও পুরস্কার বিতরন করা হয়।

 

দিনব্যাপি এই অনুষ্ঠানে হরেকরকমের দেশীয় খাবারের পাশাপাশি সবার জন্য খেলাধুলার আয়োজনও ছিল। উপস্হিত সবার মতামতে সাড়া দিয়ে আয়োজকেরা ভবিষ্যতে আবারো বিভিন্নরকম পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে আশাবাদ প্রকাশ করেন।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT