Main Menu

হিরো হওয়ার চেষ্টা করবেন না, নতুন মন্ত্রীদের নাসিম

নতুন মন্ত্রীদের উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, নতুন করে হিরো হওয়ার চেষ্টা করবেন না দয়া করে। যারা আগে ছিলেন তাদের সম্মান করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন, এটাই প্রত্যাশা করি।

রোববার (১০ মার্চ) স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

নাসিম বলেন, যারা নতুন মন্ত্রী হয়েছেন, তাদের অভিনন্দন জানাই। সঙ্গে এই কথাও বলতে চাই- আপনারা যখন কথা বলবেন, চিন্তা করে দেখবেন একটু। আগে যারা ছিল তারা কিন্তু আজকের কাজগুলো এগিয়ে নিয়ে গেছে। অনেকে এমনভাবে কথা বলেন যেন, আজকে থেকে শুরু করেছেন আগে কিছু হয় নাই। এটা দয়া করে এ রকম বলবেন না।

সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা সরকারেরই দায়িত্ব

নাসিম বলেন, এখনও আমাদের সমস্যা দারিদ্র্য। বাংলাদেশে শিশু ও নারী নির্যাতন আমাদের বন্ধ করতে হবে। আমরা সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ বন্ধ করতে পেরেছি। এজন্য প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই।

‘কিন্তু এখনও আমরা শিশু ও নারী নির্যাতন বন্ধ করতে পারিনি। আমাদের আরও কঠোর হয়ে এটা বন্ধ করতে হবে। আমরা সুশাসন চাই তার মানে এই নয় যে, আমরা কঠোর হতে চাই না। কঠোরতার সঙ্গে আমাদের কাজ করতে হবে।’

তিনি বলেন, সিঙ্গাপুর স্বাধীন হওয়ার পর লিকুয়ান দেখলেন সেখানে অনেক দুর্বৃত্ত আছে, সন্ত্রাসী আছে, তাদের সঙ্গে ক্ষমাহীন আচরণ করেছিলেন তিনি। আজকে সিঙ্গাপুর দেখেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হয়েছে।

‘আমাদের দেশেও শুধু সুশাসন-ই নয়, কঠোর আইনের প্রয়োগের মাধ্যমে এই সন্ত্রাসী, দুর্বৃত্ত, নির্যাতনকারী, ধর্ষণকারীদের গ্রেফতার করাই নয়, দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করে শিশু ও নারী নির্যাতন বন্ধ করতে হবে।’

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ঢাকা শহরে যানজট একটা ইতিহাসের মতো হয়ে গেছে। অনেক সরকার এসেছে, আমরা আছি; দীর্ঘদিন থেকে আমরা আছি তারপরও যানজট নিরসন করতে পারলাম না। আমাদের বাচ্চা-ছেলেরা রাস্তায় নেমে যানজট নিরসনের জন্য আন্দোলন করলো। প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, এই সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়ন করা দরকার।

তিনি বলেন, শুধু সড়ক দুর্ঘটনা নয়, সড়কে অপরাধ মুক্ত করার জন্য, যানজট নিরসনের জন্য আমাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রী যে নির্দেশগুলো দিয়েছেন সেগুলো বাস্তবায়ন করতে হবে। এগুলো বাস্তবায়ন করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে।

‘আজ আমাদের সবচেয়ে বড় সমস্যা, আমরা সিদ্ধান্ত নিই কিন্তু বাস্তবায়ন করতে পারি না। নিমতলীর দুঃখজনক ঘটনার পরে ১০ বছর চলে গেল, আমরা চিহ্নিত করতে পারলাম না এর জন্য কারা দায়ী। এর মধ্যে আরেকটা দুঃখজনক ঘটনা ঘটলো।’

তিনি বলেন, পুরান ঢাকা থেকে কেমিক্যাল গোডাউন সরানোর বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী কঠোরভাবে বলেছেন। এজন্য তাকে অভিনন্দন জানাই। অবশ্যই এর বাস্তবায়ন করতে হবে। আমরা যেহেতু সরকারে আছি- এটা বাস্তবায়ন করে দেখাতে হবে যে আমরা যা বলি তা আমরা করি।

‘সেই কারণে আমি বলি আমাদের অবশ্যই সিটি করপোরেশন এবং শিল্প মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে যৌথভাবে দায়িত্ব নিয়ে এটা বাস্তবায়ন করে মানুষের জীবনকে নিরাপদ করতে হবে। মানুষের জীবনের বিষয়ে কোনো আপোষ করা যাবে না। কোনো ব্যবসায়ী বা গোষ্ঠীর কাছে আমাদের সারেন্ডার করা যাবে না। দ্রুত সময়ের মধ্যে এই গোডাউনগুলো সরিয়ে নিয়ে জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।’ ‘অনেক ছোট ছোট দেশ অনেক উন্নত হয়ে গেছে। কারণ তারা আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করেছে,’ যোগ করেন নাসিম।  


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT