Main Menu

বাঁশের লাঠি যখন বাসের গিয়ার

বাসের গিয়ার বদলানোর হাতল(গিয়ার লিভার) ভেঙে গেছে। কী আর করা! চালাক ড্রাইভার একটি ছোট বাশ দড়ি দিয়ে শক্ত করে গিয়ারের সাথে বেধে তাই দিয়ে কাজ চালিয়ে নিচ্ছিলেন; কিন্তু বিধি বাম ধরা পড়তে হলো পুলিশের হাতে। তবে এ ঘটনায় বড় কোন দুর্ঘটনা ঘটেটি তাতেই স্বস্তি। বাসটি ছিলো একটি স্কুল বাস। গিয়ার লিভার ভেঙে যাওয়ার পর গত কয়েক দিন ধরেই বাশের লাঠি দিয়ে চালানো হচ্ছিল বাসটি। পুলিশ বলছে, যে কোন সময় বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারতো।

এমন বিপজ্জনকভাবে যে গাড়িটি চালানো হচ্ছিল সেটি একটি স্কুল বাস। ঘটনা ভারতের মুম্বাই নগরীর। মুম্বাই উপকণ্ঠের খার এলাকার পোদ্দার ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের বাস চালান ২২ বছর বয়সী রাজ কুমার। কিছুদিন ধরেই ট্রাফিক পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে বাশ দিয়ে গিয়ার লিভারের কাজ চালিয়ে নিচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু গত বুধবার ছাত্রদের নিয়ে স্কুলে যাওয়ার সময় বাসটি রাস্তায় ধাক্কা দেয় একটি প্রাইভেট কারকে। প্রাইভেট কারের মালিক ক্ষতিপূরণ ও ড্রাইভারের শাস্তির দাবিতে পুলিশ ডাকেন।

পুলিশ এসে দুর্ঘটনার কারন জানতে চাইলে রাজকুমার বলে যে, তার গাড়ির স্টিয়ারিং হুইল খারাপ। তাই দুর্ঘটনা ঘটেছে। গাড়িট আটক করে পুলিশ স্টিয়ারিং হুইল চেক করতে গিয়ে আবিষ্কার করে বাশের গিয়ার লিভার। এ যেন কেঁচো খুড়তে সাপ! সাথে সাথে গ্রেফতার করা হয় ড্রাইভার রাজ কুমারকে।

ড্রাইভার পুলিশকে জানায়, কয়েক দিন আগে স্কুল বাসের গিয়ার লিভারটি ভেঙে যায়। তারপর থেকে তিনি এভাবেই ‘কাজ চালিয়ে’ নিচ্ছেন।পুলিশ জানিয়েছে, বাসের ভেতর থাকা ছাত্রদের কেউ হতাহত হয়নি। ড্রাইভার রাজকুমারকে স্থানীয় আদালতে হাজির হয়। আদালত তাকে জামিন দিয়েছে। তবে বিষয়টি নিয়ে পুলিশের তদন্ত চলছে।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT