Main Menu

পাগলামামা’র মোড়ক উন্মোচন

রাশেদুল ইসলাম: ‘পাগলামামা’ র কভার পেজ অনেকে দেখেছেন । ফেসবুকেই দেখেছেন । তাহলে ঘটা করে আবার মোড়ক উন্মোচন কেন ? আমি নিজে সাধারণ মানুষ । আমার ব্যাখ্যাও সাধারণ । যে মেয়ে চোখের সামনে বড় হোল;  সেই মেয়ে যখন বিয়ের কনে সেজে লজ্জানম্র মুখে ঘোমটা টেনে বসে থাকে; তখন সেই চিরচেনা মেয়েটাকেই আমরা কৌতূহল ভরে দেখতে চাই । মনে হয় মেয়েটি আমাদের কত অচেনা ! ঠিক একই ভাবে ‘পাগলামামা’ কারো অপরিচিত নয় সত্য; কিন্তু, বইমেলার স্টলে প্রদর্শনের পূর্বে বইটি  রঙ্গিন মোড়কে বাঁধা হয় । এই বাঁধা মোড়ক খোলার জন্যই অনুষ্ঠান । ‘পাগলামামা’র মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান। বাংলা একাডেমীর বইমেলায় মোড়ক উন্মোচনের জন্য নির্ধারিত মঞ্চে ২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ তারিখ বিকাল ৪.০০ টায় এ অনুষ্ঠান করা হয় । শ্রদ্ধেয় ডঃ মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে আমাকে সম্মানিত করেছেন । ডঃ মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন একজন  বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর হিসেবে সুধী মহলে ব্যাপক পরিচিত । প্রাক্তন স্বরাষ্ট্র সচিব ডঃ কামাল উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক জনাব পার্থ প্রতিম দেব, পিকেএসএফ এর পরিচালক ডঃ ফজলে রাব্বি ছাদেক আহমাদ, বিশিষ্ট ছড়াকার মোস্তফা কামাল পাশাসহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত থেকে আমাকে অনুপ্রাণিত করেছেন । অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বিশিষ্ট কবি ও শিক্ষাবিদ ডঃ সাঈফ ফাতেউর রহমান ।

‘পাগলামামা’  হাতে পেয়েই আমি দুজন খ্যাতনামা লেখক ও বুদ্ধিজীবিকে বইটি পড়তে দিই ।  একই তারিখে রাতের বেলা আমি দুজনের কাছেই বইটি পড়ার অগ্রগতি জানতে চাই ।  দুজনেই জানান হাতে পেয়েই তাঁরা বইটি পড়া শুরু করেছেন । কত পৃষ্ঠা পর্যন্ত পড়েছেন,  তাও তাঁরা আমাকে জানান । এতে আমার মনে হয়েছে, ‘পাগলামামা’ বইটি হাতে পেলেই সবার পড়তে ইচ্ছে করবে । আর একবার পড়া শুরু করলে,  বইটি শেষ করার তাগিদ তিনি অনুভব করবেন । আর, একবার পড়া শেষ হলেই সেই পাঠকের মাথার গতানুগতিক চিন্তার গিট খুলে যাবে । নতুন চিন্তা ভর  করবে তাঁর মাথায় । তাই, সকলেরই পাগলামামা পড়া উচিত । সম্মানিত পাঠকের বুঝতে বাকি নেই যে, আমার এ লেখাটা আসলে বিজ্ঞাপন । ‘পাগলামামা’ র বিজ্ঞাপন ।  নিজের বইয়ের জন্য নিজে এতো প্রসংশা করা মানে বিজ্ঞাপন ছাড়া কিছুই নয় । এগুলো বিজ্ঞাপনের ভাষা । কিন্তু, কৌশলটা আমার স্ত্রীর । আমার স্ত্রীর একটা বিরল গুণ আছে । তিনি আসর জমাতে পারেন । যে কোন মজলিশের  গুমোট ভাবটা তিনি কথা দিয়ে সহজেই কাটাতে পারেন । যে কোন অনুষ্ঠানে তিনি প্রায়ই তাঁর আব্বার কথা বলেন । তিনি (আমার শ্বশুর)নাকি সব সময় বলতেন, ‘চান্দের তলে আমার হ্যাপোর মত সুন্দরী মেয়ে আর নেই (আমার স্ত্রীর নাম হ্যাপি) । সাজলে-গুজলে তাঁকে নাকি অপরূপ লাগে । এসব কথা আমার স্ত্রী  নিজেই বলেন । কারণ, যুগটা নাকি এতো খারাপ যে, কেউ কারো ভালোটা বলতে চায় না । তিনি নিজে যে এতো সুন্দরী, সেটা তিনি নিজে না বললে, অন্যে কেউ তাঁকে তা বলবে না ।

  ‘মোড়ক উন্মোচন’ বই প্রকাশের জন্য আবশ্যক কোন শর্ত নয় । আমার এক আত্মীয়ের ১০৬ টি বই বাজারে আছে। তিনি কখনো বইয়ের  মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান করেননি। তাতে তাঁর কোন ক্ষতি-বৃদ্ধি হয়নি। সুসাহিত্যিক হিসেবে ব্যাপক পরিচিতি ও সম্মান দুটোই তিনি পেয়েছেন । ‘পাগলামামা’ আমার তৃতীয় গ্রন্থ । এর আগের দুটি বই প্রকাশের সময়ও আমি মোড়ক উন্মোচনের অনুষ্ঠান করেছি ।  এবারও করছি । তারমানে আমার ক্ষেত্রে বই প্রকাশ করা মানেই হৈ চৈ করে সকলকে জানান দেয়ার চেষ্টা । অবশ্য এক্ষেত্রে আমার একটা ব্যাখ্যা আছে । আমার সব লেখাই অর্পণ- দর্পণ স্মৃতি ফাউনডেশনের পক্ষে লেখা । মানুষকে সৎকাজে উদ্বুদ্ধ করাই এই প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য । তাই,  আমি কোন গল্প -উপন্যাস লিখিনে । সাহিত্য সৃষ্টি আমার লক্ষ্য নয় । মানুষকে সৎকাজে উদ্বুদ্ধ করার জন্যই আমার লেখা । সংগত কারণেই আমাকে জানান দিয়ে বই প্রকাশ করতে হয় । আমার প্রথম গ্রন্থ ‘মারাক্কেশের বাতাস’ । মোড়ক উন্মোচন করেন সাবেক সচিব ডঃ কামালউদ্দিন আহমেদ । ২০১৬ সনে  মরক্কোর মারাক্কেশে অনুষ্ঠিত ২২তম জলবায়ু সম্মেলনে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন তিনি । আমার দ্বিতীয় গ্রন্থ ‘চাঁদের পাহাড়’ । মোড়ক উন্মোচন করেন ডঃ কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ । ডঃ কিউ কে আহমদ একজন খ্যাতনামা অর্থনীতিবিদ এবং সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিত্ব । এবার ‘পাগলামামা’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেছেন  ডঃ মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন ।

‘পাগলামামা’ সম্পূর্ণ ভিন্নধর্মী একটি বই । মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে ডঃ ফরাসউদ্দিন বলেন বইটি সুখপাঠ্য এবং এক নিঃশ্বাসে পড়ার মত । তিনি বলেন,   এ জাতীয় যত দেশেবিদেশী বই তিনি পড়েছেন, তারমধ্যে ‘পাগলামামা’ তাঁর কাছে শ্রেষ্ঠ মনে হয়েছে । এবার একুশের বইমেলায় মোড়ক উন্মোচন করা প্রথম বইয়ের নাম ‘পাগলামামা’ । পাঠকপ্রিয়তার ক্ষেত্রেও  বইটি একইভাবে সবার শীর্ষে থাকুক- এই কামনা করেন তিনি । তাঁর বক্তব্য যে কোন লেখকের জন্য নিঃসন্দেহে অনুপ্রেরণাদায়ক ।

 

C:\\Users\\DELL\\Desktop\\51727730_1006126966241176_6878966062478524416_n(1).jpg

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছেন ডঃ মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন ।

বইমেলায় ইছামতি প্রকাশনীর বিজ্ঞাপনের ভাষা ছিল নিম্নরুপঃ

‘পাগলামামা’ পড়ুন । বইটির উপর  আপনার নিজের মতামত দিন ।

প্রিয়জনদের উপহার দেয়ার জন্য  বইটি কিনুন । শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য কিনুন ।

আপনার এই  উপহার যেকোন পাঠকের  চিন্তার জগতকে পাল্টে দিতে পারে ।

নীচে বড় বড় অক্ষরে লেখাঃ

বইমেলার প্রথম  সপ্তাহে ‘পাগলামামা’ র দাম  ১০০.০০ টাকা । এ সুযোগ এই সীমিত সময়ের জন্য ।  


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT