Main Menu

ভারি চেহারা কমানোর কার্যকরী উপায়

বয়স হয়ে যাওয়ার প্রথম লক্ষণীয় বিষয় হলো বলিরেখা এবং ঝুলে পড়া ত্বক। ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা এবং চেহারায় সুন্দর ভাজ নির্ভর করে আপনার মুখমণ্ডলের পেশি কতটুকু শক্তিশালী। দেহের আর সব পেশির মতও এদেরও ব্যায়ামের প্রয়োজন রয়েছে। আমরা আপনর জন্য মুখমণ্ডলের এমন কিছু কার্যকরী ব্যায়াম নিয়ে এসেছি যা, আপনার চেহারায় তারুণ্যের দীপ্তি নিয়ে আসবে।

পেশিগুলো জাগিয়ে তুলুন
প্রথমেই আপনার মুখমণ্ডলের পেশিগুলো জাগিয়ে তুলতে হবে। পিঠ সোজা করে দাঁড়ান কিংবা বসুন। এখন বর্ণমালা থেকে স্বরবর্ণগুলো যতক্ষণ সম্ভব উচ্চারণ করতে থাকুন। অ, আ, ই, ঈ, উ, ঊ,ঋ, এ, ঐ, ও, ঔ- ধারাবাহিকভাবে উচ্চারণ করতে থাকুন। পুরো মুখমণ্ডল গরম হয়ে লাল হয়ে যাওয়া পর্যন্ত এটি চালিয়ে যান।

৮. বসুন এবং মাথা পেছনের দিকে হেলে দিন। এখন কল্পনা করুন আপনার নিচের ঠোট মাথার উপরের ছাদে স্পর্শ করতে হবে। যতদূর সম্ভব ছাদে চুমো খাওয়া চেষ্টা করুন এবং ৫-১০ সেকেন্ড ধরে রাখুন। এরপর সামান্য বিরতি নিন এবং আবার ২-৩ বার করুন।

৭. আপনার দুই হাত দিয়ে বুক জড়িয়ে ধরুন এবং আস্তে আস্তে থুতনি সোজা করতে থাকুন। যখন আর সোজা করতে পারবেন না তখন একটা লম্বা শ্বাস নিন এবং ১০ পর্যন্ত গুনুন। এরপর আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসুন।

৬. এই ব্যায়ামটি খুব সহজ কিন্তু বেশ কার্যকরী। এটি আপনার গালের স্থিতিস্থাপকতা নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়। নিশ্চিত করুন যেন এই ব্যায়ামের সময় আপনার মাথা সোজা থাকে। ঠোঁটের দুই কোণা নিচের দিকে টেনে ধরুন এবং ৫ সেকেন্ড ধরে থাকুন। এবার পূর্বের অবস্থায় ফিরে যান। গালের পেশিতে সামান্য ব্যথা না হওয়া পর্যন্ত করতে থাকুন। প্রতিদিন ৫ বার করে এই ব্যায়ামটি করলে আপনি কাঙ্ক্ষিত ফলাফল পাবেন।

৫. সোজা হয়ে বসুন এবং ঠোট দিয়ে একটি পেন্সিল শক্ত করে ধরুন। এবার মাথা না নাড়িয়ে পেন্সিলটি দিয়ে বাতাসে আপনার নাম লেখার চেষ্টা করুন। লেখা হলে থামুন। এভাবে বেশ কয়েক বার করুন।

৪. এই ব্যায়ামটি ঘাড়ের পেশির জন্য খুব উপকারী। এছাড়া আপনার মুখমণ্ডলের চারপাশের পেশিকেও শক্তিশালী করবে ব্যায়ামটি। প্রথমে আপনার মাথা ডান পাশে হেলে দিন এবং কান দিয়ে কাঁধ ছোঁয়ার চেষ্টা করুন। একই সময় ডান হাত দিয়ে আপনার মাথাকে প্রতিহত করতে থাকুন। ১০ সেকেন্ড ধরে রেখে ছেড়ে দিন এবার বাম পাশে করুন।

৩. গভীর শ্বাস নিয়ে গাল ফুলিয়ে নিন এবং খুব শক্ত করে ঠোঁটে ঠোঁট চেপে ধরুন। এবার দুই হাত দিয়ে গালের উপর রাখুন যেন আঙুল দিয়ে কান ঢেকে যায়। এবার গালের উপর চাপ দিন আর গালের পেশি দিয়ে সেই চাপ প্রতিহত করুন। চাপ ১০ সেকেন্ড ধরে রাখুন। এবার স্বাভাবিক হোন। এভাবে ৫-৬ বার করুন।

২. প্রথমে হা করে ঠোঁট দিয়ে দাঁত চেপে ধরুন। এবার নিচের চোয়াল সামনের দিকে সামনে নিয়ে আসুন। এরপর থুতনিতে আঙুল দিয়ে ৫ সেকেন্ড চাপ প্রয়োগ করুন এবং চোয়াল দিয়ে চাপ প্রতিহত করুন। এভাবে ১০ বার করুন।

১. এটি সর্বশেষ এবং সবচেয়ে কঠিন ব্যায়াম যা আপনার চোয়াল এবং জিহ্বার নিচের পেশিকে শক্তিশালী করবে। চোয়ালের নিচে আপনার দুই হাত মুষ্টিবদ্ধ করে ধরুন। এবার জিহ্বা দিয়ে মুখের ভিতরেই নিচের দিকে চাপ দিন আর মুষ্টি দিয়ে সেই চাপ প্রতিহত করুন। ৩০ সেকেন্ড চাপ ধরে রাখুন। বিরতি নিয়ে আবার করুন। প্রতিদিন ১০ বার এই ব্যায়াম 


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT