Main Menu

এপাড়ে আপা, ওপাড়ে দিদি!

বয়সের হিসেবে দুজনেই সিনিয়র সিটিজেন। কিন্তু দুজনেই ফিট। আর সেই ফিটনেস টেস্ট যদি ব্যাডমিন্টনের কোর্ট হয় তাহলে তো কথাই নেই। দুজনেই তাতে পারদর্শী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি খেলতে পারেন, তাহলে তার থেকে বয়সে ছোট হয়ে ওপারের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন পারবেন না। বিশেষ করে নিয়ম করে ওয়াকারে হাঁটা অভ্যাস যখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সবমিলে শীতের আমেজে মমতা আর শেখ হাসিনা দুজনেই চুটিয়ে কোর্টে শাটল কক উড়িয়ে গেলেন।

সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আগে শেখ হাসিনার কিছু ছবি ভাইরাল হয়েছিল। তাতে দেখা গিয়েছিল বঙ্গবন্ধু কন্যা গণভবনে ব্যাডমিন্টন খেলছেন। আসলে শেখ হাসিনার জীবন নিয়ে তৈরি হওয়া ডকুফিচার- ‘হাসিনা: অ্যা ডটার’স টেল’ এর একটি দৃশ্যে দেখা গিয়েছে নিজের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সঙ্গে নিয়েই ব্যাডমিন্টন খেলছেন প্রধানমন্ত্রী। গণভবনে এই দৃশ্যটি ক্যামেরাবন্দি করা হয়। আর ডকুফিচার মুক্তি পেতেই সাড়া পড়ে যায় সারাদেশে। শেখ হাসিনার বিরলতম মুহূর্তগুলির একটি হয়েই থেকে গেল খেলার দৃশ্যটি।

ওপারে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কম যাননি। তিনিও চুটিয়ে ব্যাডমিন্টন খেলতে পারেন। তার প্রমাণ দিলেন কোর্টে নেমে। বোলপুরে প্রশাসনিক কাজে অংশ নিতে গিয়ে প্রবল ঠাণ্ডায় তিনি নেমে পড়লেন ব্যাডমিন্টন খেলতে। প্রতিপক্ষদের সঙ্গে সমান তালে খেলে গেলেন। চাদর পরেও যে এত দ্রুত গতিতে র‌্যাকেট চালানো সম্ভব তাও বুঝিয়ে দিলেন। মমতার ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে এই ছবি পোস্ট হতেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টানা তিনবার ক্ষমতায়। তার সঙ্গে সুসম্পর্ক পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ও নয়াদিল্লি-ঢাকা কূটনৈতিক আলোচনার মাঝে হাসিনা-মমতা সাক্ষাৎ হয়েছে বেশ কয়েকবার। বাংলাদেশে এসেছিলেন মমতা। শেখ হাসিনাও গিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গে।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT