Main Menu

রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের ৩’শ প্রার্থী

সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নানা অনিয়মের তথ্য এবং সার্বিক বিষয়ে নানা অনিয়মের নিয়ে বক্তব্য শুনতে বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সব প্রার্থীদের নিয়ে বৈঠক বসেছে বিএনপি।

আজ বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) বেলা ১২টার দিকে ৩০০ প্রার্থীদের নিয়ে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বৈঠক শুরু হয়েছে৷

বৈঠকে বিএনপি মহাসচিব ও ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী, গণফোরাম মহাসচিব মোস্তফা মোহসীন মন্টু, সুব্রত চৌধুরীসহ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা উপস্থিত হয়েছেন।

বৈঠকে নিজ নিজ দলীয় আসনে ৩০ ডিসেম্বর কি ঘটেছে সে বিষয়ে প্রত্যেকের বক্তব্য শোনা হবে এবং পরবর্তী করণীয় বিষয়ে প্রত্যেকের বক্তব্য নিয়ে বিকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনের কাছে নির্বাচন বাতিল এবং নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে পুনরায় নির্বাচনের দাবি নিয়ে স্মারকলিপি দিতে যাবে।

প্রসঙ্গত, সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নানা অনিয়মের তথ্য নিয়ে স্মারকলিপি দিতে আজ নির্বাচন কমিশনে যাচ্ছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত সকল প্রার্থীরা।

এ জোটের প্রার্থীরা আজ বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) বিকাল ৩টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয় থেকে নির্বাচন কমিশনের গিয়ে এই স্মারকলিপি দেবেন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের স্বাক্ষরে বুধবার (২ জানুয়ারি) প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে পাঠানো এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিএনপির পক্ষ থেকে ধানের শীষের প্রার্থীদের বেলা ১১টায় গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। সেখানে তাদের সঙ্গে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বৈঠক হবে। তারপর বিকালে তারা স্মারকলিপি দিতে যাবেন।

তিনশ আসনের মধ্যে ২৯৮ আসনে এবার ধানের শীষ প্রতীকে প্রার্থী মনোনয়ন দেয় বিএনপি। বাকি দুটি আসনের মধ্যে চট্টগ্রাম-১৪ আসনে ২০ দলীয় জোটের শরিক এলডিপির অলি আহমেদ নিজের দলের প্রতীক ‘ছাতা’ এবং কক্সবাজার-২ আসনে জামায়াতে ইসলামীর হামিদুর রহমান আযাদ স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেন।

৩০ ডিসেম্বর ওই ভোটে বিএনপি ৫টি আসনে এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক গণফোরাম দুটি আসনে জয়ী হতে পেরেছে।

অন্যদিকে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ পেয়েছে ২৫৭ আসন, জোটগতভাবে তাদের আসন সংখ্যা ২৮৮। এই নিরঙ্কুশ জয়ে টানা তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করতে যাচ্ছে।

ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা কামাল হোসেন ভোটের পর ফল প্রত্যাখ্যান করে অবিলম্বে নির্দলীয় সরকারের অধীনে পুনঃনির্বাচন দেওয়ার দাবি জানালেও সিইসি নূরুল হুদ পরদিন নানাকচ করে বলেন, পুঃভোটের কোনো সুযোগ নেই।

বিএনপির প্রার্থীদের মধ্যে বগুড়া-৬ আসনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বগুড়া-৪ আসনে মোশাররফ হোসেন, ঠাকুরগাঁও-৩ আসেন জাহিদুর রহমান, চাঁপাই নবাবগঞ্জ-২ আসনে আমিনুল ইসলাম ও চাঁপাই নবাবগঞ্জ-২ আসেন হারুনুর রশীদ জয় পেয়েছেন।

আর গণফোরামের প্রার্থীদের মধ্যে সিলেট- ২ আসনে মোকাব্বির খান ও মৌলভীবাজার-২ আসনে সুলতান মো. মনসুর জয়ী হতে পেরেছেন।

খালেদা জিয়ার আসন বগুড়া-৭ এ বিএনপি যাকে বিকল্প প্রার্থী করেছিল, তার প্রার্থিতা আদালতে বাতিল হয়ে যায়। ওই আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করীমকে বিএনপি সমর্থন দিয়েছিল, তিনিও বিজয়ী হয়েছেন।

এরআগে গত ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট ২৮৮টি আসনে জয়লাভ করে। আওয়ামী লীগ একাই জিতেছে ২৫৭টি আসনে। একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ায় দলটি টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করতে যাচ্ছে। এই নির্বাচনে বিএনপির নেতৃত্বাধীন জোট পেয়েছে ৭টি আসন। বিএনপি এককভাবে পেয়েছে ৫টি। নির্বাচনে এককভাবে ২২টি আসন পেয়ে দ্বিতীয় বৃহত্তম দল হয়েছে জাতীয় পার্টি। একাদশ সংসদে তারাই বিরোধী দল হতে যাচ্ছে।

বিএনপি জোটের সাংসদেরা শপথ না-ও নিতে পারেন বলে জানা গেছে। ইতিমধ্যে তারা ভোটের ফল প্রত্যাখ্যান করেছে।

আওয়ামী লীগের নেতারা বলছেন, নির্বাচিতরা শপথ নেওয়ার এক সপ্তাহের মধ্যে নতুন মন্ত্রিপরিষদ গঠন হবে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা টানা তৃতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT