Main Menu

ফেসবুক-টুইটারকে শোধরাতে সময় বেঁধে দিল ইইউ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টুইটারকে শোধরাতে বেঁধে দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। ‘বিভ্রান্তিকর’ ভোক্তা অধিকার আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নীতিমালা গ্রহণ না করলে নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে ইইউ। এজন্য চলতি বছরের শেষ অবধি সময় বেঁধে দিয়েছে তারা।
 
বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) ইইউ বিচার কমিশনার ভেরা ইওরোভা 
বলেন, ‘ফেসবুক আমাকে আশ্বস্ত করেছিল যে, তাদের নীতিমালায় বিভ্রান্তিকর যা কিছু রয়ে গেছে, তা ডিসেম্বরের মধ্যে শোধরানো হবে, কিন্তু তারা বেশ মন্থর গতিতে এগোচ্ছে। এটা আমার ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে দিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন,  ‘এখন সময় এসেছে ব্যবস্থা গ্রহণের। আর কোনও প্রতিশ্রুতি শোনার সময় নয়। তাদের সঙ্গে অনন্তকাল ধরে সমঝোতা আলোচনা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। আমরা চাই ফেসবুক তার ব্যবহারকারীদের স্বচ্ছভাবে জানাক যে, প্রতিষ্ঠানটি কিভাবে কাজ করে এবং কিভাবে অর্থ উপার্জন করে। আমি আশা করি ডিসেম্বর মাসের মধ্যে ফেসবুকেরনীতিমালায় পরিবর্তন আনা হবে।’

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের মার্চ মাসে ফেসবুক এবং অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো ইইউ'র পরামর্শ মোতাবেক নীতিমালা পরিবর্তন করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। নীতিমালার কোথায় কোথায় পরিবর্তন আনতে হবে তা আরও সাতমাস আগে প্রতিষ্ঠানগুলোকে জানিয়েছিল ইউরোপীয় দেশগুলোর এই সংগঠনটি।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT