Main Menu

এবার পদত্যাগ করছেন শাজাহান খান

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসের চাপায় গত রোববার দুই কলেজ শিক্ষার্থী নিহত হয়। এই পরিপ্রেক্ষিতে সারা দেশের স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভের আগুন ছড়িয়ে পড়ে। শিক্ষার্থীরা রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন করতে শুরু করে।

দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার দিনই সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হেসেছিলেন নৌ পরিবহণ মন্ত্রী ও শ্রমিক নেতা শাজাহান খান। এই ঘটনা শিক্ষার্থীদের ক্ষোভের আগুনে আরও ঘি ঢালে। এক পর্যায়ে নৌ মন্ত্রী তাঁর হাসির জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করেন। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় শাজাহান খান মহাখালীর দক্ষিণপাড়ায় মিমের বাসায়ও গিয়েছেন। সেখানে তিনি মিমের পরিবারের সদস্যদের খোঁজখবর নেন। শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনাও প্রকাশ করেন তিনি।

কিন্তু পরিস্থিতি এতদিনে নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরকার চাইছে, প্রয়োজন পড়লে শাজাহান খান পদত্যাগ করুন। সবচেয়ে বড় কথা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও চাইছেন, আজকের মধ্যে যদি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসে তাহলে নৌ মন্ত্রী শাজাহান খান যেন পদত্যাগ করেন। প্রধানমন্ত্রী পুরো ঘটনায় খুবই বিব্রত ও ক্ষুদ্ধ হয়েছেন। সরকারের দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, আজকের মধ্যে যদি পরিস্থিতি শান্ত না হয়, শিক্ষার্থীরা যদি আবার রাজপথে নামে এবং তাদের নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব না হয় তবে সরকার তাকে মন্ত্রিত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করে ফেলেছে। তবে শাজাহান খানকে বরখাস্ত করা হবে না। নৌ মন্ত্রীর সঙ্গে আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতারা কথা বলেছেন। পদত্যাগের যদি বিকল্প না থাকে তাহলে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত যাতে শাজাহান খানের পক্ষ থেকে আসে সে ব্যাপারে তাঁকে বোঝানো হয়েছে।

এর আগে হজ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে মন্ত্রিত্ব হারাতে হয়েছিল আওয়ামী লীগের এমপি আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীকে। পরবর্তীতে তিনি জাতীয় সংসদ থেকেও পদত্যাগ করেন। দলের ও সরকারের ভাবমূর্তি রক্ষার জন্য শাজাহান খানের ক্ষেত্রেও এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সরকারের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT