Main Menu

আরাফাতের ময়দানে অলৌকিকভাবে এক মহিলা হাজীর সন্তান প্রসব

পবিত্র আরাফাতের ময়দানে এখন ৩০ লাখেরও বেশি হাজী অবস্থান করছেন। তবে একজন মহিলা হাজী মহান আল্লাহ পাকের অশেষ রহমাত লাভ করে একটি পুত্র সন্তান প্রসব করেছেন।

অথচ এই নারীর এই সময়ে মা হওয়ার কোন কথায় ছিল না। গর্ভবতী হাজী আরো বেশ কয়েকদিন পরে মা হওয়ার দিন ছিল। তবে আল্লাহ পাকের রহমতে কিছুটা অলৌকিকভাবে পবিত্র হজ পালন করতে এসে পাকিস্তানী ওই নারী সন্তানের জন্ম দিয়েছেন।

পবিত্র হজের প্রথম দিন মঙ্গলবার মিনা আল-ওয়াদি হাসপাতালে শিশুটির জন্ম হয় বলে হাসপাতালের পরিচালক মোহাম্মদ মালাইবারি জানিয়েছেন। মা ও শিশু সুস্থ আছে বলেও জানান তিনি।

এবারের হজে এই প্রথম মিনায় কোনো হাজি সন্তানের জন্ম দিলেন। শিশুটির নাম রাখা হয়েছে মোহাম্মদ আলী।

শিশুটির বাবা জানান, মিনায় পৌঁছানোর পরপরই তার স্ত্রীর প্রসব যন্ত্রণা শুরু হয়। সঙ্গে সঙ্গে তাকে মিনা আল-ওয়াদি হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। পবিত্র স্থানে সন্তানের জন্ম হওয়ায় খুশি ওই ব্যক্তি।

তিনি হাসপাতালের কর্মীদের সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

মক্কার পবিত্র মসজিদুল হারাম থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার দূরে মিনায় অবস্থানের মধ্যদিয়ে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকে পবিত্র হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে।

মিনা থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে আরাফাতের ময়দানে বুধবার ভোর থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত অবস্থান করবেন হজব্রতে অংশগ্রহণকারীরা। বৃহস্পতিবার কোরবানির মাধ্যমে শেষ হবে হজের আনুষ্ঠানিকতা।

অন্যরা যা পড়ছে
আব্দুল জব্বারের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক
৩০ আগস্ট সকাল সাড়ে আটটায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠশিল্পী, গত শতকের ষাট ও সত্তর দশকের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী, একুশে পদক ও স্বাধীনতা পদক পাওয়া আব্দুল জব্বার। তার মৃত্যুতে গোটা সংগীতাঙ্গনে শোকের ছায়া। আর এবার এই কিংবদন্তি শিল্পীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করলেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আব্দুল জব্বারের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

বুধবার আব্দুল জব্বারের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পাঠানো এক শোকবার্তায় শেখ হাসিনা বলেন, একুশে ও স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট এই শিল্পীর স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে গাওয়া গান ১৯৭১ সালে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রেরণা ও মনোবল বাড়িয়েছে।

অন্যদিকে রাষ্ট্রপতির পাঠানো শোক বার্তায় তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধকালীন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে তার কণ্ঠে গান মুক্তিযোদ্ধাসহ মুক্তিকামী দেশবাসীকে গভীরভাবে অনুপ্রাণিত করেছিল। তার মৃত্যুতে দেশ একজন বরেণ্য শিল্পীকে হারালো। তার মৃত্যু দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে এক অপূরণীয় ক্ষতি। এই বরেণ্য শিল্পীর অবদান জাতি গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে।

কিংবদন্তি এই কণ্ঠযোদ্ধার মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর। আব্দুল জব্বার কিডনি, হার্ট, প্রস্টেটসহ বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছিলেন।

‘সালাম সালাম হাজার সালাম’, ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’, ‘ওরে নীল দরিয়া’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় বাংলা গানের গায়ক আব্দুল জব্বার মুক্তিযুদ্ধের সময় হারমোনিয়াম নিয়ে কলকাতার বিভিন্ন ক্যাম্পে মুক্তিযোদ্ধাদের গান গেয়ে উদ্বুদ্ধ করেন। সেই দুঃসময়ে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে গেয়েছেন অসংখ্য গান। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে এই শিল্পীর গাওয়া গান মুক্তিযোদ্ধাদের প্রেরণা ও মনোবল বাড়িয়েছে।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT